বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নজরে সীমান্ত সুরক্ষা, ৫টি থিয়েটার কম্যান্ডে বিভক্ত হচ্ছে সেনাবাহিনী
সেনায় যুক্ত হতে চলেছে দুই নতুন কম্যান্ড- চিনের জন্য নর্দার্ন কম্যান্ড ও পাকিস্তানের জন্য ওয়েস্টার্ন কম্যান্ড।
সেনায় যুক্ত হতে চলেছে দুই নতুন কম্যান্ড- চিনের জন্য নর্দার্ন কম্যান্ড ও পাকিস্তানের জন্য ওয়েস্টার্ন কম্যান্ড।

নজরে সীমান্ত সুরক্ষা, ৫টি থিয়েটার কম্যান্ডে বিভক্ত হচ্ছে সেনাবাহিনী

  • ২০২২ সালের মধ্যে পাঁচটি থিয়েটার কম্যান্ডের অধীনে পুনর্সংগঠিত হতে চলেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

নির্দিষ্ট কার্যক্ষেত্র নির্ধারণ এবং নিখুঁত ছন্দবদ্ধ অভিযান চালানোর লক্ষ্যে ২০২২ সালের মধ্যে পাঁচটি থিয়েটার কম্যান্ডের অধীনে পুনর্সংগঠিত হতে চলেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী।

মন্ত্রিসভার অনুমোদন পাওয়ার পরে সামরিক দফতরে খুব তাড়াতাড়ি অতিরিক্ত ও যুগ্ম সচিব পদে নিয়োগ হতে চলেছে। তার পরেই সেনায় যুক্ত হতে চলেছে চিনের জন্য নর্দার্ন কম্যান্ড ও পাকিস্তানের জন্য ওয়েস্টার্ন কম্যান্ড। চিন ও আমেরিকার মতো ভারতীয় সেনাবাহিনীতে পাঁচটি নির্দিষ্ট থিয়েটার কম্যান্ড তৈরি করার জন্য প্রয়োজনীয় ক্ষমতা অর্পণ করা হয়েছে চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াতের উপরে। 

সামরিক ও জাতীয় নিরাপত্তা প্রকল্পকরা জানিয়েছেন, নর্দার্ন কম্যান্ডের আওতাধীন এলাকা শুরু হবে লাদাখের কারাকোরাম গিরিপথ থেকে অরুণাচল প্রদেশের কিবিথু আউটপোস্ট পর্যন্ত। বাহিনীর এই বিভাগের দায়িত্বে থাকবে মোট ৩,৪৮৮ কিমি দীর্ঘ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা। বিভাগীয় সদর দফতর থাকছে লখনউতে। 

ওয়েস্টার্ন কম্যান্ডের দায়িত্বে থাকছে সিয়াচেন হিমবাহ অঞ্চলের সালতোরো গিরিখাতে গিরি ইন্দিরা কল থেকে গুজরাতের শেষ প্রান্ত পর্যন্ত। বিভাগীয় সদর দফতর থাকছে সম্ভবত জয়পুরে।

এ ছাড়া থাকছে তৃতীয় থিয়েটার কম্যান্ড ‘পেনিনস্যুলার কম্যান্ড’। সদর দফতর তিরুবনন্তপুরমে। চতুর্থটি পুরোদস্তুর বায়ুসেনা কম্যান্ড ও পঞ্চমটি পুরোদস্তুর নৌসেনা কম্যান্ড। 

বর্তমানে ভারতীয় সেনাবাহিনী, ভারতীয় বায়ুসেনা ও ভারতীয় নৌসেনা সম্মিলিত ভাবে দেশের আকাশসীমা রক্ষার দায়িত্বে রয়েছে। ঘটনা হল, প্রতিটি ভারতীয় সেনা বিভাগের প্রধান দফতরই কোনও বিমানঘাঁটির কাছাকাছি অবস্থিত। এর ফলে একই দায়িত্বে থাকছে একাধিক বিভাগীয় বাহিনী, যার জেরে বাড়ছে অনাবশ্যক খরচ।

বন্ধ করুন