বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘খেলা সবে শুরু হয়েছে’, জেল থেকে বেরিয়েই উদ্ধবকে হুঁশিয়ারি অর্ণবের
জেল থেকে বেরনোর পর অর্ণব (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
জেল থেকে বেরনোর পর অর্ণব (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

‘খেলা সবে শুরু হয়েছে’, জেল থেকে বেরিয়েই উদ্ধবকে হুঁশিয়ারি অর্ণবের

সেই হুঁশিয়ারির মধ্যে অর্ণবের আগাম জামিনের আর্জি আগামী ২৩ নভেম্বর স্থগিত করা হয়েছে।

জেল থেকে বেরিয়েই পৌঁছে গিয়েছিলেন রিপালবিক টিভির স্টুডিয়োয়। আর সেখান থেকেই মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন অর্ণব গোস্বামী। হুঁশিয়ারি দিয়ে জানালেন, প্রতিটি ভাষায় তাঁর চ্যানেল শুরু করবেন। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও পা রাখবে তাঁর চ্যানেল।

আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলায় গ্রেফতারির আটদিনের মাথায় বুধবার রাত সাড়ে আটটা নাগাদ নবি মুম্বইয়ের তালোজা জেল থেকে ছাড়া পান অর্ণব। সেখান থেকে লোয়ার প্যানেলে রিপালবিক টিভির স্টুডিয়ো হাজির হন। আটদিন পর নিজের চ্যানেলের স্টুডিয়োয় দাঁড়িয়ে বলেন, ‘উদ্ধব ঠাকরে আমার কথা শুনুন। আপনি হেরে গিয়েছেন। আপনাকে হারিয়ে দেওয়া হয়েছে।’

অর্ণব দাবি করেন, গত ৮ নভেম্বর থেকে তালোজা জেলে তিনবার তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘উদ্ধব ঠাকরে, আপনি আমায় পুরনো, ভুয়ো মামলায় গ্রেফতার করেছেন এবং আমার কাছে ক্ষমাও চাননি।’ 

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আইন লঙ্ঘনেরও অভিযোগ তোলেন। জানান, আগামী ১১-১২ মাসের মধ্যে দেশের সব ভাষায় রিপাবলিক টিভি আত্মপ্রকাশ করবে। এমনকী আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও পা রাখবে রিপাবলিক টিভি। তিনি বলেন, ‘আমি জেলের ভিতর থেকেও (চ্যানেলগুলি) নিয়ে আসব এবং আপনি (উদ্ধব) কিছু করতে পারবেন না।’ সঙ্গে হুঁশিয়ারি দেন, ‘খেলা সবে শুরু হয়েছে।’

সেই হুঁশিয়ারির মধ্যে অর্ণবের আগাম জামিনের আর্জি আগামী ২৩ নভেম্বর স্থগিত করা হয়েছে। গত ৪ নভেম্বর সকালে গ্রেফতারের জন্য যে পুলিশ আধিকারিকরা গিয়েছিলেন, তাঁদের হেনস্থার জন্য সেই ফৌজদারি মামলা দায়ের করা হয়েছিল। অর্ণব, তাঁর স্ত্রী, ছেলে এবং দু'জন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে সেই অভিযোগ দায়ের করেছিলেন এক মহিলা পুলিশ আধিকারিক। যিনি অর্ণবকে গ্রেফতার করতে গিয়েছিলেন। যদিও সেই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন অর্ণব। তিনি দাবি করেছিলেন, শুধুমাত্র ‘অবৈধ’ গ্রেফতারির প্রতিবাদ করেছিলেন তিনি। 

সেই মামলা নিয়ে অর্ণবের আইনজীবী শ্যাম কল্যাণকর বলেন, ‘আজ আমরা গ্রেফতারির বিরুদ্ধে অন্তবর্তীকালীন রক্ষাকবচ চাইনি। কারণ আমরা সুপ্রিম কোর্টের বিস্তারিত রায়ের (আত্মহত্যার প্ররোচনার সেই মামলায় জামিন পেয়েছেন অর্ণব) অপেক্ষা করছি।’

বন্ধ করুন