ট্রাম্পের সঙ্গে মোদী (ছবি সৌজন্য এপি)
ট্রাম্পের সঙ্গে মোদী (ছবি সৌজন্য এপি)

কিছুদিনের মধ্যেই চূড়ান্ত হবে বাণিজ্য চুক্তি, ট্রাম্পের সামনে আশ্বাস মোদীর

  • ট্রাম্প জানান, বাণিজ্য চুক্তি এখনও দেরি আছে। তবে প্রতিরক্ষা চুক্তিতে তিনি খুশি।

ঢাকঢোল পিটিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরে যে বাণিজ্য চুক্তি হচ্ছে না, তা জানাই ছিল। তবুও দ্বিপাক্ষিক বৈঠকের কিছুটা আশার আলো শোনানোর চেষ্টা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন : দিল্লির 'হ্যাপিনেস ক্লাসে' পড়ুয়াদের সঙ্গে মেতে উঠলেন মেলানিয়া ট্রাম্প

এদিন হায়দরাবাদ হাউসে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় বসেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও মোদী। বৈঠক শেষে যৌথ বিবৃতিতে মোদীর আশাপ্রকাশ করেন যে বাণিজ্যচুক্তি নিয়ে যে আলোচনা চলছে তা ফলপ্রসূ হবে। তাঁর কথায়, 'দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য নিয়ে দু'দেশের বাণিজ্যমন্ত্রীর মধ্যে ইতিবাচক আলোচনা হয়েছে। আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে এই বাণিজ্য আলোচনার আইনি রূপ দেবে আমাদের টিম। বাণিজ্য চুক্তি নিয়ে দর কষাকষির বিষয়ে সহমত হয়েছি আমরা। আমি নিশ্চিত যে তা ফলপ্রসূ হবে।'

ভারত সফরে ট্রাম্পের দ্বিতীয় দিন : লাইভ ব্লগ

দীর্ঘদিন ধরে আলোচনা সত্ত্বেও বাণিজ্য চুক্তি চূড়ান্ত করতে পারেনি দু'দেশ। ভারতের দুগ্ধজাত দ্রব্য ও পোলট্রি ক্ষেত্রে ভারতীয় বাজারে প্রবেশের অনুমতি চায় ট্রাম্প সরকার। পাশাপাশি আমেরিকার ইচ্ছা, সীমিত বাণিজ্য চুক্তির মাধ্যমে চিকিৎসার সরঞ্জামের দামের যে ঊর্ধ্বসীমা বেঁধে দিয়েছে ভারত, তা তুলে নেওয়া হোক। অন্যদিকে ভারতে চেয়েছিল, এদেশ থেকে মার্কিন মুলুকে রফতানি করা ইস্পাত, অ্যালুমিনিয়ামের উপর কম শুল্ক চাপানো হোক। ভারতের সফরের সময় তা নিয়ে ফলপ্রসূ কোনও সিদ্ধান্ত হবে বলে প্রত্যাশার পারদ চড়েছিল। কিন্তু সফর শুরুর আগেই ট্রাম্প স্পষ্ট জানিয়ে দেন, এ যাত্রায় হচ্ছে না বাণিজ্য চুক্তি।

আরও পড়ুন : মোদী স্তুতির পর তিন বিলিয়ন ডলার প্রতিরক্ষা চুক্তির ঘোষণা, একনজরে ট্রাম্প ভাষণ

এবিষয়ে এদিন মোদী বলেন, 'খোলামেলা, উপযুক্ত ও ভারসাম্যমূলক বাণিজ্যের প্রতি দায়বদ্ধ ভারত ও আমেরিকা। গত তিন বছরে আমাদের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য দুই অঙ্কের সংখ্যায় বেড়েছে। আরও ভারসাম্যমূলক হয়েছে।'

ট্রাম্পের ভারত সফরের প্রথম দিন

ট্রাম্প অবশ্য বৈঠকের পর জানান, বড় একটি বাণিজ্য চুক্তির উপর জোর দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি জানিয়ে দেন, বাণিজ্য চুক্তি এখনও দেরি আছে। তবে প্রতিরক্ষা চুক্তিতে তিনি খুশি।

বন্ধ করুন