বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘Johnson & Johnson-এর করোনা টিকায় রক্ত জমাট বাঁধার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে’
ফাইল ছবি : রয়টার্স (Reuters)
ফাইল ছবি : রয়টার্স (Reuters)

‘Johnson & Johnson-এর করোনা টিকায় রক্ত জমাট বাঁধার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে’

মঙ্গলবার এমনটাই জানাল ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওষুধের নিয়ন্ত্রক ইউরোপিয়ান মেডিসিনস এজেন্সি (EMA)।

Johnson & Johnson-এর করোনা টিকায় রক্ত জমাট বাঁধার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হতে পারে। টিকার প্যাকেজিং-এ এর উল্লেখ করা উচিত্। মঙ্গলবার এমনটাই জানাল ইউরোপীয় ইউনিয়নের ওষুধের নিয়ন্ত্রক ইউরোপিয়ান মেডিসিনস এজেন্সি (EMA)।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বেশ কিছু ক্ষেত্রে Johnson & Johnson-এর টিকা গ্রহণের পর রক্ত জমাট বাঁধার অভিযোগ উঠেছে। তারপরেই এই টিকার প্রয়োগ স্থগিত করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধের নিয়ন্ত্রক ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (FDA)।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এখনও পর্যন্ত প্রায় ৬৮ লাখ ব্যক্তি এই ভ্যাকসিন নিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে মোট ছ'জনের ক্ষেত্রে রক্ত জমাট বাঁধার ঘটনা হয়েছে। এরপরেই সাবধানতা অবলম্বন করে প্রয়োগ বন্ধ করে FDA। অন্যদিকে গত সপ্তাহেই ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের দেশগুলিতে জনসন অ্যান্ড জনসনের টিকা প্রয়োগ শুরু হয়। আপাতত সেই প্রক্রিয়া বন্ধ করেছে সংস্থা। আর তারপরেই এমন ঘোষণা EMA-এর।

প্রসঙ্গত, আরেক করোনা টিকার ক্ষেত্রেও একই পরামর্শ ইউরোপিয়ান মেডিসিন্স এজেন্সির। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা করোনা টিকার ক্ষেত্রেও মিলেছে রক্ত জমাট বাঁধার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া। আর সে কথা যাতে লেবেল-এ উল্লেখ করা হয়, তারই রেকমেন্ডেশান দেওয়া হয়েছে।

অন্যান্য করোনা টিকার থেকে কিছুটা আলাদা

ফাইল ছবি : রয়টার্স
ফাইল ছবি : রয়টার্স (REUTERS)

জনসন অ্যান্ড জনসনের এই ভ্যাকসিনের উৎপাদন হচ্ছে বেলজিয়ামে। অন্যান্য টিকাগুলির থেকে এটি কিছুটা আলাদা। একবার টিকার ডোজ নিলেই যথেষ্ট। অন্যান্য টিকার ক্ষেত্রে সাধারণত নির্দিষ্ট সময় অন্তর দুটি করে ডোজ নিতে হচ্ছে। এক্ষেত্রে সেই ব্যাপার নেই।অন্যদিকে সাধারণ ফ্রিজেই সংরক্ষণ করা যায় জনসন অ্যান্ড জনসনের করোনা টিকা। ফলে দুর্গম স্থান, উষ্ণতর দেশে পাঠানো ও সংরক্ষণ করাও বেশ সহজ।

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহারের অনুমোদন পায় এই টিকা। ফিজার-বায়োএনটেক ও মডার্নার পাশাপাশি ছাড়পত্র পেয়েছিল Johnson & Johnson-এর করোনা টিকা। তবে আপাতত টিকা প্রয়োগ বন্ধ।

বন্ধ দক্ষিণ আফ্রিকাতেও

ফাইল ছবি : রয়টার্স
ফাইল ছবি : রয়টার্স (REUTERS)

দক্ষিণ আফ্রিকাতেই প্রথম প্রয়োগ শুরু হয় জনসন ও জনসনের এই ভ্যাকসিনের। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি থেকে এখনও পর্যন্ত তিন লাখ স্বাস্থ্যকর্মী এই টিকা নিয়েছেন। কিন্তু এই অভিযোগের পর সেখানেও স্থগিত এই টিকার ব্যবহার।

জনসন অ্যান্ড জনসনের বক্তব্য

গত সপ্তাহে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার বিষয়ে বিবৃতি প্রকাশ করে জনসন অ্যান্ড জনসন। সেখানে প্রতিটি গুরুতর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার ঘটনা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে বলে দাবি সংস্থার। 'আমরা থ্রম্বোএম্বলিক (রক্ত জমাট) কেসগুলির বিষয়ে ওয়াকিবহাল। বর্তমানে এই বিরল ঘটনাগুলির সঙ্গে আমাদের করোনা টিকার কোনও সরাসরি যোগাযোগ পাওয়া যায়নি,' বিবৃতিতে জানি জনসন অ্যান্ড জনসন।

বন্ধ করুন