আমদাবাদের তবলিগ সদস্যরা যারা নিজামুদ্দিন মার্কাজে গিয়েছিলেন
আমদাবাদের তবলিগ সদস্যরা যারা নিজামুদ্দিন মার্কাজে গিয়েছিলেন

'আইনভঙ্গকারী' তবলিগি জামাতের সদস্যদের গুলি করে মারার সওয়াল রাজ ঠাকরের

কড়া শাসনের দাবি করলেন মহারাষ্ট্র নবনির্মান সেনার প্রধান।

গাজিয়াবাদে নার্সদের সঙ্গে অশ্লীল ব্যবহার করেছিল যে তবলিগি জামাতের সদস্যরা, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার সওয়াল করলেন মহারাষ্ট্র নবনির্মান সেনার প্রধান রাজ ঠাকরে। তাদের চিকিত্সা বন্ধ করে দেওয়া উচিত বলেও মনে করেন রাজ। এখনও পর্যন্ত দেশে প্রায় হাজার জন করোনায় আক্রান্ত যারা নিজামুদ্দিন মার্কাজে গিয়েছিলেন। কোয়ারেন্টাইনে আছেন এদের সংস্পর্শে আসা ২২ হাজার লোক। কিন্তু যেভাবে অভদ্র আচরণ ও অসহযোগিতার অভিযোগ উঠেছে তবলিগি জামাতিদের বিরুদ্ধে, সেই নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক।

জামাতিদের প্রসঙ্গে রাজ বলেন, 'ওদের গুলি করে মেরে ফেলা উচিত। ওদের চিকিত্সা করা হচ্ছে কেন। ওরা কী মনে হচ্ছে করছে যে দেশের চেয়ে ধর্ম বড়, কী ষড়যন্ত্র করছে ওরা, মানুষের গায়ে থুতু ছেটাচ্ছে, নার্সদের সামনে উলঙ্গ হয়ে ঘুরছে। জামাতিদের পিটিয়ে সেই ভিডিও ভাইরাস করে দেওয়া উচিত যাতে মানুষের মনে আস্থা জাগে।'

প্রধামন্ত্রীর তবলিগি জামাতের লোকদের এই আচরণ নিয়ে কথা বলা উচিত ছিল বলে মনে করেন রাজ।যেভাবে মহারাষ্ট্র পুলিশ তবলিগি জামাতদের অনুমতি দেয়নি, তার প্রশংসা করেন রাজ। মৌলবী যারা ভোটের সময় বিধান দেন, তারা এখন কোথায়, সেই প্রশ্নও করেন তিনি। কার্যত সংখ্যালঘু সম্প্রদায়কে এদিন হুঁশিয়ারিও দেন এমএনএস নেতা।

বন্ধ করুন