বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মহারাষ্ট্রের হাসপাতালের ICU-তে বিধ্বংসী আগুন, মৃত্যু কমপক্ষে ১০ করোনা রোগীর
মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে আগুন। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে আগুন। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

মহারাষ্ট্রের হাসপাতালের ICU-তে বিধ্বংসী আগুন, মৃত্যু কমপক্ষে ১০ করোনা রোগীর

  • মহারাষ্ট্রের আমেদনগরের জেলা হাসপাতালের আইসিইউতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড।

মহারাষ্ট্রের আমেদনগরের জেলা হাসপাতালের আইসিইউতে বিধ্বংসী অগ্নিকাণ্ড। মৃত্যু হয়েছে কমপক্ষে ১০ জন করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীর। সেই ঘটনায় বিস্তারিত তদন্তের দাবি তুলেছেন মহারাষ্ট্র বিধানসভার বিরোধী দলনেতা দেবেন্দ্র ফড়ণবীস।

আমেদনগরের জেলাশাসক রাজেন্দ্র ভোঁসলকে উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, জেলা হাসপাতালের আগুনে কমপক্ষে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। শনিবার সকাল ১১ টা নাগাদ যখন আগুন লেগেছে, তখন হাসপাতালে ১৭ জন করোনাভাইরাস রোগী ভরতি ছিলেন। কীভাবে আগুন লেগেছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়। প্রাথমিকভাবে দমকলবাহিনীর অনুমান, শর্ট সার্কিট থেকেই হাসপাতালে আগুন লেগে যায়।

সেই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন মহারাষ্ট্রের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফড়ণবীস। টুইটারে তিনি বলেন, ‘নগর থেকে অত্যন্ত ভয়ঙ্কর এবং বাজে খবর আসছে। নগর সিভিল হাসপাতালের আইসিইউতে আগুন লেগে যাওয়ায় যাঁরা প্রিয়জনদের হারিয়েছেন, তাঁদের গভীরভাবে সমবেদনা জানাচ্ছি। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি। বিস্তারিত তদন্ত করতে হবে। দোষীদের বিরুদ্ধে নিতে হবে কড়া ব্যবস্থা।’

মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা একেবারেই নতুন নয়। দেশজুড়ে মহামারীর দাপট শুরুর পর থেকে একাধিকবার রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের হাসপাতালে আগুন লেগে মৃত্যু হয়েছে করোনা রোগীদের। গত এপ্রিলে মুম্বইয়ের কাছে পালঘরের অবস্থিত বীরারের বিজয় বল্লভ কোভিড হাসপাতালে আগুন লেগে কমপক্ষে ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছিল। চলতি বছরের শুরুতেই ভান্ডারা জেলা হাসপাতালের শিশু বিভাগে (সিক নিউবর্ন কেয়ার ইউনিট) আগুন লেগেছিল। সেই ঘটনায় কমপক্ষে ১০ সদ্যোজাত শিশুর মৃত্যু হয়েছিল। ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

বন্ধ করুন