শশী থারুরের সঙ্গে আলাপচারিতা, তার তাতে ‘হিউমর’ থাকবে না? হতেই পারে না। ৯৪.৩ রেডিয়ো ওয়ান ও ১০৪ ফিভার এফ এমের #100Hours100Stars-র শো'তে RJ Sanu-র সঙ্গে আলাপচারিতেও সেই হিউমরের আঁচ পাওয়া গেল।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে কোনও Covidiots-এর সম্মুখীন হয়েছেন কিনা, সেই প্রশ্নের জবাবে থারুর বলেন, ‘আসলে অনেক, সোশ্যাল মিডিয়ায়। যখন আপনি দেখেন বিনোদনের জন্য বড় জমায়েত দেখেন, তাঁদের অধিকাংশ তরুণ। তাঁরা যদি করোনায় আক্রান্ত হন, তাহলে তাঁদের উপর ভাইরাস ততটা প্রভাব ফেলবে না, যতটা বয়স্কদের উপর ফেলবে। ঠাকুমাকে একবার জড়িয়ে ধরা তাঁর জন্য মৃত্যুদণ্ড হতে পারে।’ Covidiots মানে সেইসব ব্যক্তি, যারা করোনা পরিস্থিতিতে জনস্বাস্থ্য বা সতর্কতা সম্বন্ধীয় বিধি এড়িয়ে যান।

তিরুবন্তপুরমের সাংসদের মতে, যাঁরাই আপনাকে ফলো করবেন, তাঁরাই আপনার ভক্ত নাও হতে পারেন। কিন্তু, কেন? থারুর বলেন, ‘সত্যিটা হল, অনেকেই এরকম ভাবনায় নিজেকে হারিয়ে ফেলেন যে তাঁদের ফলোয়ার সংখ্যা বেশি, সেজন্য তিনি সারা বিশ্বে প্রশংসিত। সত্যিটা হল, প্রায়শই আপনাকে এমন অনেকে ফলো করেন, যাঁদের একমাত্র লক্ষ্য হল আপনাকে আক্রমণ করা।’

p

RJ Sanu-কে কয়েকটি মজার প্রশ্নেরও উত্তর দেন থারুর। এক তরুণের প্রশ্ন থারুরকে জিজ্ঞাসা করেন RJ Sanu। ওই তরুণ জানান, তাঁর কাকার বিশ্বাস, আচার-আচরণের মাধ্যমে করোনার মোকাবিলা করা যাবে। তো তাঁর কী করা উচিত বলে জানতে চান ওই তরুণ। জবাবে এরকম আরও সমাধান তাঁর কাকাকে পাঠানোর পরামর্শ দেন থারুর। যা একেবারেই অবাস্তব। যেমন - ইতালিতে আবিষ্কার হয়েছিল ইডলির। এভাবেই কাকাকে শেখাতে পারবেন যে মজা ও জোকসের জন্য হোয়্যাটসঅ্যাপ ব্যবহার করা হয়।

বন্ধ করুন