বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘর্ষে ১২ পড়ুয়াকে বহিষ্কার
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘর্ষে ১২ পড়ুয়াকে বহিষ্কার (ছবি সৌজন্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/ডয়চে ভেলে)
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘর্ষে ১২ পড়ুয়াকে বহিষ্কার (ছবি সৌজন্য বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম/ডয়চে ভেলে)

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘর্ষে ১২ পড়ুয়াকে বহিষ্কার

  • সিসিটিভি ফুটেজ ও গোয়েন্দা তথ্য যাচাই করে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে জানান প্রক্টর৷

ছাত্রলিগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনায় বিভিন্ন মেয়াদে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২ শিক্ষার্থীকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ৷ সিসিটিভি ফুটেজ ও গোয়েন্দা তথ্য যাচাই করে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে জানান প্রক্টর৷

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভুঁইয়া রবিবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের 'বোর্ড অব রেসিডেন্স হেলথ অ্যান্ড ডিসিপ্লিনারি' কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘গত কয়েক দিনের সংঘর্ষের ঘটনায় দুই পক্ষের অভিযোগ, সিসিটিভি ফুটেজ ও গোয়েন্দা তথ্য যাচাই-বাছাই করে ১২ জন শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত হয়েছে৷ তাদের মধ্যে দুই শিক্ষার্থীকে এক বছর এবং বাকিদের ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে ৷'

বিশ্ববিদ্যালয়ের বহিষ্কৃতরা হলেন, ভাষা বিজ্ঞান বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের মো. নাইম, একই শিক্ষাবর্ষের বাংলা বিভাগের সাইফুল ইসলাম, রসায়ন বিভাগের ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের আশরাফুল আলম নায়েম, একই শিক্ষাবর্ষের পরিসংখ্যান বিভাগের আকিব জাভেদ, ইতিহাস বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের জুনায়েদ হোসেন জয় ও অর্থনীতি বিভাগের ২০১১-১২ শিক্ষাবর্ষের ফরহাদ৷

আইন বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের মির্জা খবির সাদাফ, একই বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের খালেদ মাসুদ, লোকপ্রশাসন বিভাগের ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের অহিদুজ্জামান সরকার, সমাজতত্ত্ব বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষের আরিফুল ইসলাম, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের তানজিল হোসেন ও আরবি বিভাগের ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের তৌহিদ ইসলাম৷

বহিষ্কৃতদের মধ্যে সাদাফ খান খবির ও আশরাফুল আলম নায়েমকে একবছর এবং বাকি সবাইকে ছয় মাসের জন্য বহিষ্কার করা হয়েছে৷ সোমবার থেকেই তারা আর অ্যাকাডেমিক কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবে না বলে জানিয়েছেন প্রক্টর প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভুঁইয়া৷

বন্ধ করুন