বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পরীক্ষার চাপ নেই, ঘরবন্দি, তবু কেন ২০২০তে সাড়ে ১২ হাজার পড়ুয়া আত্মহত্যা করলেন?
কেন অতিমারির ভারতে বিপুল সংখ্য়ক পড়ুয়া আত্মহত্যা করলেন? প্রতীকী ছবি (Getty Images/iStockphoto) (HT_PRINT)
কেন অতিমারির ভারতে বিপুল সংখ্য়ক পড়ুয়া আত্মহত্যা করলেন? প্রতীকী ছবি (Getty Images/iStockphoto) (HT_PRINT)

পরীক্ষার চাপ নেই, ঘরবন্দি, তবু কেন ২০২০তে সাড়ে ১২ হাজার পড়ুয়া আত্মহত্যা করলেন?

  • পরিসংখ্যান অনুসারে দেখা যাচ্ছে ২০১৯ সালের তুলনায় এই আত্মহত্যার হার প্রায় ২১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছিল ২০২০ সালে।

একেবারে চরম উদ্বেগের ছবি।  ২০২০ সালে অতিমারি পরিস্থিতিতে দেশে ১২ হাজার ৫০০ জনেরও বেশি ছাত্র ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন। দৈনিক প্রায় ৩৪জন পড়ুয়া আত্মহত্যা করেছেন। পরিসংখ্যান অনুসারে দেখা যাচ্ছে ২০১৯ সালের তুলনায় এই আত্মহত্যার হার প্রায় ২১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছিল ২০২০ সালে। ১৯৯৫ সাল থেকে পরিসংখ্যান ঘাঁটলে দেখা যাচ্ছে গোটা দেশে এই সময়কালের মধ্যে প্রায় ১লক্ষ ৮০ হাজার ছাত্রছাত্রী আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছিলেন। এর মধ্যে ২০২০ সালে সবথেকে বেশি আত্মহত্যার ঘটনা হয়েছে। তবে এই সময়কালে পরীক্ষা, পড়াশোনার চাপ সবথেকে কম ছিল। এমনকী পরীক্ষা ছাড়াই পাশ করেছেন অনেকে। তারপরেও কেন এই প্রবণতা বাড়ল?

পরিসংখ্যান বলছে, ২০২০ সালে ১২, ৫২৬জন পড়ুয়ার মধ্যে ৫৩ শতাংশ পড়ুয়া মহারাষ্ট্র, ওড়িশা, মধ্যপ্রদেশ, তামিলনাড়ু, ঝাড়খণ্ড ও কর্ণাটক রাজ্যের বাসিন্দা ছিলেন। তবে সমাজতাত্ত্বিক, মনোবিদদের দাবি, নতুন এক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন ছাত্রছাত্রীরা। একদিকে কোভিড পরিস্থিতি, অন্যদিকে আর্থ সামাজিক ক্ষেত্রে একের পর এক পরিবর্তন নতুন করে ভাবাচ্ছে তাদের। অধ্যাপক ডঃ জন বিজয় সাগর বলেন, আচমকা আত্মহত্যা করে ফেলেছে এমনটা নয়। আগেও পড়ুয়ারা সমস্য়ায় পড়তেন। কিন্তু এবার একেবারে অন্য পরিস্থিতি। এবার বেশিরভাগ সময়ই পড়ুয়ারা ঘরের ভেতরেই কাটিয়েছে। অভিভাবকরাও বাড়ি থেকে কাজ করছেন। সেই পরিস্থিতিতে মনের কথা বলার মতো বন্ধু বান্ধবও তারা পায়নি। পাশাপাশি সাংসারিক অশান্তিগুলোও বার বার দেখেছে তারা। তার প্রভাবও পড়েছে। মনোবিদ ডঃ এমএস ধর্মেন্দ্র বলেন, লকডাউনে ওরা ঘরবন্দি থেকেছে। এতে অনেকের পারফরম্যান্সও নেমে গিয়েছে। এসব নানা কারণ কাজ করেছে আত্মহত্যার পেছনে। 

 

বন্ধ করুন