বাড়ি > ঘরে বাইরে > কেচে, ইস্ত্রি করে, বাজারে বিক্রি হচ্ছিল ফেলে দেওয়া মাস্ক, পুলিশের অভিযানে আটক ২
কোলাজে উদ্ধার হওয়া ও কাচা মাস্ক।
কোলাজে উদ্ধার হওয়া ও কাচা মাস্ক।

কেচে, ইস্ত্রি করে, বাজারে বিক্রি হচ্ছিল ফেলে দেওয়া মাস্ক, পুলিশের অভিযানে আটক ২

  • স্থানীয়দের কাছে ঘটনার খবর পেয়ে বুধবার অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান থেকে প্রচুর রক্তমাখা গ্লাভস ও ব্যবহৃত মাস্ক উদ্ধার হয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের জেরে মাস্কের কালোবাজারি তো আগেই শুরু হয়েছে, এবার প্রকাশ্যে এল তার থেকেও ভয়ঙ্কর খবর। হাসপাতালের ফেলে দেওয়া সার্জিক্যাল মাস্ক ও গ্লাভস শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ইস্ত্রি করে বিক্রি করার অভিযোগ উঠল এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় ঢাকার টঙ্গি এলাকা থেকে ২ জনকে আটক করেছে স্থানীয় পুলিশ। তবে মূল অভিযুক্ত এখনো অধরা।

টঙ্গি পূর্ব থানা সূত্রের খবর, সম্প্রতি মাস্ক ও গ্লাভসের চাহিদা বাড়ায় এই কারবারে নামে নাসির নামে বছর পঁয়ত্রিশের এক যুবক। একটি বাড়ি ভাড়া নিয়ে হাসপাতালের ফেলে দেওয়া মাস্ক ও গ্লাভস কেচে ফের তা দোকানে বিক্রি করা শুরু করে সে। সেজন্য ঢাকার উত্তরা, টঙ্গী, গাজিপুরের বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে ব্যবহৃত মাস্ক ও গ্লাভস কুড়িয়ে নিয়ে আসত। তারপর তা মেয়াদ উত্তীর্ণ শ্যাম্পু দিয়ে কেচে ইস্ত্রি করে ফের বাজারে বিক্রি করত সে। ইস্ত্রি করার জন্য একজন লোকও রেখেছিল ওই ব্যক্তি।

স্থানীয়দের কাছে ঘটনার খবর পেয়ে বুধবার অভিযান চালায় পুলিশ। সেখান থেকে প্রচুর রক্তমাখা গ্লাভস ও ব্যবহৃত মাস্ক উদ্ধার হয়েছে। ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ২ জনকে আটক করে। তাদের একজন কাচার পর মাস্ক ইস্ত্রি করতেন। পুলিশ আসার খবর পেয়ে পালায় মূল অভিযুক্ত নাসির।

টঙ্গি পূর্ব থানার ওসি সুব্রত জানিয়েছেন, ‘প্রচুর মাস্ক ও গ্লাভস বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িতদের ধরতে অভিযান চলছে।‘

জানা গিয়েছে মূল অভিযুক্ত নাসিরের বাড়ি বাংলাদেশের গোপালগঞ্জে। গত প্রায় ১৫ বছর ধরে ঢাকায় বসবাস করছিলেন তিনি।



বন্ধ করুন