বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > তৃতীয় কারোর সঙ্গে বউ পালিয়েছে, খুঁজে দিন! শাস্তি চাই, থানায় গেলেন দুই 'স্বামী'
তৃতীয় কারোর সঙ্গে পালিয়েছেন স্ত্রী। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে Pixabay)

তৃতীয় কারোর সঙ্গে বউ পালিয়েছে, খুঁজে দিন! শাস্তি চাই, থানায় গেলেন দুই 'স্বামী'

  • কীভাবে দ্বিতীয় স্বামী ওই মহিলার জীবনে প্রবেশ করেছিল? পুলিশের দাবি, একটি মিস কল এসেছিল ওই মহিলার নম্বরে। তারপরই তার সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। এরপর প্রথম স্বামী, দুই সন্তানকে ছেড়ে তিনি দ্বিতীয়জনের সঙ্গে পালিয়ে যান। তৃতীয়জনের সঙ্গে তার আলাপ সোশ্যাল মিডিয়ায়।

বউ খুঁজতে থানায় গেলেন দুই স্বামী। নাগপুরের থানার ভরোসা সেলে দুই যুবকের বক্তব্য শুনে কার্যত আকাশ থেকে পড়েছিলেন পুলিশকর্মীরা। তাঁরা দুজনেই একই বধূর স্বামী। একজন প্রথম পক্ষ ও অপরজন দ্বিতীয় পক্ষের। তাঁরা পুলিশের কাছে গিয়ে অভিযোগ করেন, তাঁদের সঙ্গেও ওই মহিলার বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু এবার তৃতীয় কারোর সঙ্গে পালিয়ে গিয়েছে।

একটি ইংরাজি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে দেখা যাচ্ছে, প্রথম পক্ষের স্বামীকে তিনি ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। তাদের দুটি সন্তানও রয়েছে। বিয়ের চার বছরের মধ্যে ওই মহিলা প্রথম স্বামীর হাত ছেড়ে অন্য এক যুবকের সঙ্গে বন্ধুত্ব করেন। এরপর বছর দুয়েক আগে তিনি মন্দিরে গাটছঁড়া বাঁধেন দ্বিতীয় ওই যুবকের সঙ্গে।

কিন্তু কীভাবে দ্বিতীয় স্বামী ওই মহিলার জীবনে প্রবেশ করেছিল? পুলিশের দাবি, একটি মিস কল এসেছিল ওই মহিলার নম্বরে। তারপরই তার সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে। এরপর প্রথম স্বামী, দুই সন্তানকে ছেড়ে তিনি দ্বিতীয়জনের সঙ্গে পালিয়ে যান।

নাগপুরের বাইরে একটি মন্দিরে বিয়ে করে তারা স্বামী, স্ত্রী হিসাবেই থাকতেন। প্রথম স্বামী ছিলেন রাজমিস্ত্রি। দ্বিতীয় স্বামী অপটিক ফাইবার পাতার কাজ করেন। এদিকে সেই দ্বিতীয় জনের হাত থেকেও পালিয়ে গিয়েছেন ওই মহিলা। এরপরই প্রথম পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন দ্বিতীয়পক্ষ। এরপর মহিলাকে শিক্ষা দিতে দুজনে জোট বেঁধে পুলিশের কাছে যান।

এদিকে প্রথম পক্ষের স্বামী স্ত্রীকে হারিয়ে এখন পুরো মাতাল হয়ে গিয়েছেন। তাঁকে কোনওরকমে বুঝিয়ে থানায় নিয়ে আসেন দ্বিতীয় পক্ষ। পুলিশ একটি অভিযোগ নিয়েছে। প্রসঙ্গত মহিলা, বাচ্চা, বয়স্কদের সহায়তার জন্য তৈরি হয়েছে পুলিশের এই ভরোসা সেল। কিন্তু আদৌ কি খোঁজ মিলবে ওই মহিলার?

বন্ধ করুন