বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Woman raising fund to 'Study' in Harvard: হার্ভার্ডের পড়তে লাগবে ২৩ লাখ! অনলাইনে টাকা তুলতে গিয়ে কটাক্ষের মুখে তরুণী
ওই তরুণী মুসকান। (ছবি সৌজন্যে, টুইটার এবং ইনস্টাগ্রাম Humans of Bombay)

Woman raising fund to 'Study' in Harvard: হার্ভার্ডের পড়তে লাগবে ২৩ লাখ! অনলাইনে টাকা তুলতে গিয়ে কটাক্ষের মুখে তরুণী

  • Woman taking donation to ‘study’ in Harvard University: ২২ বছরের মুসকানের দাবি, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে সাইকোলজিতে স্নাতকোত্তরের সুযোগ পেয়েছেন। কনিষ্ঠতম ভারতীয় হিসেবে তাঁর আবেদন গ্রহণ করেছে আমেরিকার বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে অর্থ।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে লাগবে ২৩ লাখ টাকা। নিজের 'স্বপ্নপূরণের' জন্য অনলাইনে টাকা তোলার আর্জি জানিয়ে কটাক্ষের মুখে পড়লেন এক তরুণী। নেটিজেনদের একাংশের প্রশ্ন, ‘এটা কীরকম স্কিম?’

সম্প্রতি 'হিউম্যানস অফ বম্বে'-র সোশ্যাল মিডিয়া পেজে ওই তরুণীকে সাহায্যের আর্জি জানিয়ে পোস্ট করা হয়। তাতে দাবি করা হয়, ২২ বছরের মুসকান বাসওয়া হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে সাইকোলজিতে স্নাতকোত্তরের সুযোগ পেয়েছেন। মুসকানের দাবি, কনিষ্ঠতম ভারতীয় হিসেবে তাঁর আবেদন গ্রহণ করেছে আমেরিকার বিখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে অর্থ।

মুসকানের দাবি, হার্ভার্ডে আবেদন এবং ভিসার জন্য ইতিমধ্যে ২.৫ লাখ টাকা খরচ হয়ে গিয়েছে। কিন্তু এখনও তাঁর ২৩ লাখ টাকা লাগবে। তাঁর মা 'সিঙ্গল মাদার' এবং পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী। সরকারি চাকরি করলেও তাঁর মায়ের পক্ষে সেই অর্থ জোগাড় করা সম্ভব হচ্ছে না বলে দাবি করেছেন মুসকান। তাঁর দাবি, কলেজে প্রথম হয়েছিলেন। এনজিওতে কাজ করেছেন।

যদিও সেই ডোনেশনের আর্জি নিয়ে কটাক্ষের মুখে পড়েছেন মুসকান। এক নেটিজেন বলেন, ‘কেট্টোতে ডোনেশনের বিষয়টি নিয়ে বরাবরই সন্দেহ ছিল। আর কখনও করব না। এভাবে ডোনেশন হাস্যস্পদ করে তুলবেন না।’ এক নেটিজেন আবার দাবি করেন, দুটি ভিন্ন সাইটে ভিন্ন দাবি করেছেন মুসকান। একটি সাইটে ২৩ লাখ টাকা এবং অপর একটি সাইটে ২৫ লাখ টাকা বলেছেন। অপর একজন দাবি করেছেন, একটি সাইটে নিজেকে চণ্ডীগড়ের বাসিন্দা বলে দাবি করেছেন। অপর সাইটে বলেছেন যে তিনি ধর্মশালায় থাকেন। যদিও 'হিউম্যানস অফ বম্বে'-র তরফে দাবি করা হয়েছে, যাবতীয় তথ্য খতিয়ে দেখা হয়েছে।

বন্ধ করুন