বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সরকারি হাসপাতাল থেকে উধাও ৩২০ ডোজ Corona টিকা!
ছবি : এএনআই (ANI)
ছবি : এএনআই (ANI)

সরকারি হাসপাতাল থেকে উধাও ৩২০ ডোজ Corona টিকা!

টিকা কেন্দ্রের নোডাল আধিকারিক এই বিষয়ে সংবাদসংস্থা বলেন, 'সেন্টারে টিকা আসা-ব্যবহারের পুঙ্খানুপুঙ্খ রেকর্ড রাখা হয়। সম্ভবত স্টোর থেকেই টিকাগুলি উধাও হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।'

হাসপাতালের ভিতর থেকে উধাও ৩২০ ডোজ করোনাভাইরাস টিকা। রাজস্থানের জয়পুরের হরিবক্স কানওয়াতিয়া সরকারি হাসপাতালে এমনই ঘটনা হয়েছে। ঘটনার পর হাসপাতাল, স্বাস্থ্যকেন্দ্রে করোনা টিকা কতটা সুরক্ষিত, তাই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

স্থানীয় থানায় FIR দায়ের করা হয়েছে। টিকা কেন্দ্রের নোডাল আধিকারিক এই বিষয়ে সংবাদসংস্থা এএনআইকে বলেছেন, 'সেন্টারে টিকা আসা-ব্যবহারের পুঙ্খানুপুঙ্খ রেকর্ড রাখা হয়। সম্ভবত স্টোর থেকেই টিকাগুলি উধাও হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।'

ইতিমধ্যেই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। এর পেছনে হাসপাতালেরই কারও জড়িয়ে থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে না। আপাতত সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। হারিয়ে যাওয়া করোনা টিকা ভারত বায়োটেকের কোভ্যাক্সিন। আপাতত সেই ৩২০ ডোজ টিকার সন্ধানে নেমেছে পুলিশ।

সাধারণত ট্রাক বা অন্য মালবাহী গাড়িতে স্থানান্তর করা হয় করোনা টিকা। সঙ্গে সাধারণত নিরাপত্তারক্ষী থাকেন। অনেক সংখ্যক ডোজ থাকলে সেক্ষেত্রে অতিরিক্ত পুলিশি নিরাপত্তাও দেওয়া হয়। থাকে পাইলট কার, সশস্ত্র পুলিশ। ফলে টিকার নিরাপত্তা যে বেশ গুরুত্বপূর্ণ তা বলাই বাহুল্য।

তবে ভ্যাকসিনগুলি সাধারণ তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা যায় না। ভারতে ব্যবহৃত দুটি ভ্যাকসিনই ২-৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে সংরক্ষণ করতে হয়। ফলে, কোনওভাবে ভ্যাকসিন উধাও হলেও সেটি নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় সংরক্ষিত করেই স্থানান্তর করতে হবে। ফলে, এ বিষয়ে ওয়াকিবহাল কেউ জড়িত থাকার সন্দেহ করছেন অনেকে।

অনেকে।

বন্ধ করুন