বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাংলাদেশে ৩৫টি সরস্বতী মূর্তি ভাঙচুরের অভিযোগ
ভাঙচুর হওয়া মূর্তিগুলি
ভাঙচুর হওয়া মূর্তিগুলি

বাংলাদেশে ৩৫টি সরস্বতী মূর্তি ভাঙচুরের অভিযোগ

  • স্থানীয় থানার পুলিশ ও পুজো উজ্জাপন পরিষদের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পুজো উজ্জাপন কমিটির সচিব অমিত লালা জানিয়েছেন, ‘আমরা ছোটবেলা থেকে বাসুদেববাবুকে মূর্তি গড়তে দেখছি।

সরকার কড়া পদক্ষেপের কথা বললেও বাংলাদেশে বিরাম নেই হিন্দু নির্যাতনে। সেদেশে ফের হিন্দু দেবতার মূর্তি ভাঙার অভিযোগ উঠল। এবার চট্টগ্রামের বোয়ালখালিতে ৩৫টি মূর্তি ভাঙার অভিযোগ উঠল চরমপন্থী ইসলামি মৌলবাদীদের বিরুদ্ধে। আগামী সরস্বতী পুজোর জন্য মূর্তিগুলি বানাচ্ছিলেন বাসুদেব পাল নামে এক মৃৎশিল্পী। পুলিশের দাবি, রাস্তার পাশে রাখা মূর্তি কোনও কিছুর ধাক্কায় ভেঙে গিয়েছে।

বাসুদেববাবু জানিয়েছেন, বোয়ালখালি গ্রামে ১০০ বছর ধরে মূর্তি গড়ে তাঁর পরিবার। মূর্তি তৈরি করে রাখেন রাস্তার ধারে খোলা জায়গায়। শনিবার সকালে দেখেন সেই মূর্তিগুলি ভাঙে রেখে গিয়েছে কেউ বা কারা। খবর দেন পুলিশে।

স্থানীয় থানার পুলিশ ও পুজো উজ্জাপন পরিষদের সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পুজো উজ্জাপন কমিটির সচিব অমিত লালা জানিয়েছেন, ‘আমরা ছোটবেলা থেকে বাসুদেববাবুকে মূর্তি গড়তে দেখছি। রাস্তার ধারে মূর্তিগুলি তৈরি করে রাখেন তিনি। কে বা কারা অশান্তি ছড়াতে মূর্তি ভেঙে রেখে গিয়েছে। আমরা এর তদন্ত দাবি করেছি।’ ওদিকে স্থানীয় থানার আধিকারিকের দাবি, প্রাথমিকভাবে মূর্তি কেউ ইচ্ছা করে ভেঙেছে বলে মনে হয়নি। রাস্তা দিয়ে যাওয়ার কোনও বাঁশেরগাড়ি থেকে বেরিয়ে থাকা বাঁশের ধাক্কায় সেগুলি ভেঙে যেতে পারে।

বলে রাখি, দুর্গাপুজোর অষ্টমীতে দুর্গামণ্ডপে কোরান রেখে গিয়েছিল এক মৌলবাদী। এর পর সেদেশের হিন্দুদের ওপর ধর্মগ্রন্থ অবমাননার অভিযোগ তুলে একের পর এক মন্দির ও মণ্ডপ ভাঙচুর করে চরমপন্থী মুসলিমরা। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় জেলেদের একটি আস্ত গ্রাম। ঘটনায় অন্তত ৯ জন হিন্দুর মৃত্যু হয়।

 

বন্ধ করুন