বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভারতে ইংরাজিতে ছাঁকা নম্বর, আমেরিকায় গিয়ে লেজেগোবরে, ভাষাই বুঝলেন না ৬ পড়ুয়া
ভারতে ইংরাজি পরীক্ষায় বড় কারচুপির অভিযোগ। প্রতীকী ছবি (HT_PRINT)

ভারতে ইংরাজিতে ছাঁকা নম্বর, আমেরিকায় গিয়ে লেজেগোবরে, ভাষাই বুঝলেন না ৬ পড়ুয়া

  • পুলিশ সূত্রে খবর একটি বেসরকারি সংস্থা ওই পরীক্ষার দায়িত্বে ছিল। তারা সিসি ক্যামেরা বন্ধ রেখে পরীক্ষা নিয়েছিল। সেই পরীক্ষাতে চরম অনিয়ম হয়েছে। ইংরাজি না জেনেও তারা ছাঁকা নম্বর পেয়েছে। সেই সংস্থাকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তলব করা হয়েছে।

বিদেশে পড়তে যাওয়ার আগে অনেক সময়ই সেই পড়ুয়া ইংরাজি কতটা জানেন সেটা একবার পরখ করে দেখা হয়। সেই পরীক্ষায় ভালো নম্বর পেয়েই বিদেশে পড়তে গিয়েছিলেন ৬ গুজরাতি পড়ুয়া। কিন্তু আমেরিকার আদালতের সামনে ইংরাজি বলতে গিয়ে একেবারে নাকানি চোবানি খেলেন তাঁরা। ওখানে গিয়ে আর ইংরেজি বলতে পারেননি তাঁরা। গুজরাত পুলিশের দাবি, ইংরাজি পরীক্ষাতেই কোথাও গোলমাল হয়েছে। ওখানে মূল দুর্নীতি হয়েছে। যার জেরে ওই পড়ুয়ারা বিদেশে গিয়ে আর ইংরাজি বলতে পারেননি। 

এদিকে বিদেশে যাওয়ার আগে ইন্টারন্যাশানাল ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টেস্টিং সিস্টেমে তারা সাড়ে ৬ থেকে ৭ পর্যন্ত স্কোর করেছেন। কিন্তু বিদেশে গিয়ে একেবারে ডাহা ফেল। লেজেগোবরে অবস্থা। কিন্তু তাদের আদালতে যেতে হল কেন?

অভিযোগ, কানাডা সীমান্ত লাগোয়া একটি নৌকাডুবি হয়েছিল। তখনই তাদের উদ্ধার করা হয়। অবৈধভাবে তারা কানাডায় ঢোকার চেষ্টা করছিল বলে অভিযোগ। তাদের আদালতে তোলা হয়। কিন্তু সেখানে তারা ইংরাজি কোনও শব্দই বুঝতে পারেননি। এরপর হিন্দু অনুবাদকের চেষ্টায় তারা ভাব বিনিময় করেন। পরে মার্কিন সরকার গুজরাত পুলিশকে গোটা বিষয়টি জানায়। গুজরাত পুলিশ খোঁজ নিয়ে দেখে তারা ইংরাজি পরীক্ষাতে ভালোই ফল করেছিল। কিন্তু ওই পরীক্ষাতেই মূল গলদ থেকে গিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর একটি বেসরকারি সংস্থা ওই পরীক্ষার দায়িত্বে ছিল। তারা সিসি ক্যামেরা বন্ধ রেখে পরীক্ষা নিয়েছিল। সেই পরীক্ষাতে চরম অনিয়ম হয়েছে। ইংরাজি না জেনেও তারা ছাঁকা নম্বর পেয়েছে। সেই সংস্থাকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তলব করা হয়েছে। 

বন্ধ করুন