বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > এক দশকে সবথেকে কমল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের সংখ্যা, ২০২১ সালে বন্ধ ৬৩ কলেজ
বন্ধ হল ৬৩টি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ: এআইসিটিই’‌র রিপোর্ট
বন্ধ হল ৬৩টি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ: এআইসিটিই’‌র রিপোর্ট

এক দশকে সবথেকে কমল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের সংখ্যা, ২০২১ সালে বন্ধ ৬৩ কলেজ

ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজগুলো বন্ধ করে দেওয়ার প্রবণতার জন্য ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের আসনগুলোর পরিমাণ তলানিতে ঠেকেছে

বন্ধ হল ৬৩টি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ। চলতি বছরের রেকর্ড সংখ্যক ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বন্ধ করার আবেদন মঞ্জুর করেছে অল ইন্ডিয়া কাউন্সিল ফর টেকনিকাল এডুকেশন। এআইসিটিই’‌র তরফ থেকে পাওয়া এক তথ্যে এমনটাই জানা গিয়েছে।

এমনিতেই গত ২০১৫-১৬ সালের শিক্ষাবর্ষ থেকেই প্রতি বছর বিভিন্ন ইঞ্জিনিয়ারিং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর তরফ থেকে এআইসিটিই’‌র কাছে কলেজ বন্ধ করার ভূরি ভূরি আবেদনপত্র জমা পড়ছে। আবেদনগুলো খতিয়ে দেখে তা বন্ধ করার অনুমতিও দিচ্ছে এআইসিটিই। তবে করোনাকালে তা আরও প্রকট হয়ে উঠেছে। তার উপর চলতি বছরের রেকর্ড সংখ্যক ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বন্ধ করার আবেদনে সম্মতি দিয়েছে এআইসিটিই। ‌সেক্ষেত্রে বন্ধ হওয়া ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজগুলোর সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩টি। গত এক দশকের মধ্যে এই হার সর্বোচ্চ।

এআইসিটিইর সাম্প্রতিক ওই তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরে অনেকগুলো ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। তাতে প্রভাব পড়েছে বিভিন্ন কলেজের আসন সংখ্যায়। সেগুলো কম থাকার জন্য ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও ডিপ্লোমা কোর্সে আসন সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ২৩.২৮ লক্ষ। যা এক দশকে সর্বনিম্ন। তার মধ্যে আরও চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে যে, দেশের কোণায় কোণায় গজিয়ে উঠা বিভিন্ন ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের পঠন-পাঠনের মান অত্যন্ত নিম্ন। শুধু তাই নয়, কলেজ ও ক্লাসরুমের পরিকাঠামো অত্যন্ত খারাপ থাকার পাশাপাশি শিক্ষকদের পড়ানোর মান নিয়েও বহু অভিযোগ উঠছিল। এমনকী, পড়াশোনার শেষে প্লেসমেন্টের সুযোগ দিত না বহু কলেজ বলে অভিযোগ।

বন্ধ করুন