লোকসভায় হট্টগোল (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
লোকসভায় হট্টগোল (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

হাঙ্গামার জন্য লোকসভার বাজেট অধিবেশন থেকে বহিষ্কৃত ৭ কংগ্রেস সাংসদ

ওই সাতজনকে চলতি অধিবেশনের জন্য বহিষ্কার করতে প্রস্তাব উত্থাপন করেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী। বিরোধীদের প্রতিবাদের মধ্যেও ধ্বনিভোটে সেই প্রস্তাব পাশ হয়।

'খারাপ' আচরণের জন্য লোকসভা থেকে সাত কংগ্রেস সাংসদকে বহিষ্কার করা হল। তাঁরা হলেন - গৌরব গগৈ, টি এন প্রাথাপন, গুরজিৎ সিং আউজলা, বেন্নি বেহনন, রাজমোহন উন্নিথান, ডিন কুরিয়াকোসে ও মন্নিকামটেগোর। ওই সাত সাংসদ আর চলতি বাজেটে অধিবেশনে থাকতে পারবেন না।

আরও পড়ুন : হিংসার পর দিল্লির ড্রেন থেকে উদ্ধার ১১ মৃতদেহ

দিল্লির হিংসা নিয়ে এদিনও উত্তপ্ত ছিল লোকসভা। মুলতুবি হয়ে যায় অধিবেশন। আবার অধিবেশন শুরু হওয়ার পর সভাপতিত্ব করছিলেন বিজেপি সাংসদ মীনাক্ষী লেখি। অধিবেশন শুরু হওয়ার পরই সাত কংগ্রেস সাংসদের নাম নেন তিনি। লোকসভার নিয়ম অনুযায়ী, যিনি স্পিকারের চেয়ারে বসে আছেন, তিনি যদি কারোর নাম নেন তাহলে তিনি সেদিনের অধিবেশনে আর থাকতে পারেন না।

আরও পড়ুন : উত্তরপ্রদেশ থেকে গ্রেফতার দিল্লি সংঘর্ষে আট রাউন্ড গুলি চালানো যুবক

ওই সাতজনকে চলতি অধিবেশন থেকে বহিষ্কারের প্রস্তাব উত্থাপন করেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী। বিরোধীদের প্রতিবাদের মধ্যেও ধ্বনিভোটে সেই প্রস্তাব পাশ হয়। তারপর ওই সাত সাংসদকে লোকসভা ছাড়তে বলেন মীনাক্ষী। এদিনের মতো লোকসভা মুলতুবিও করে দেন তিনি।

আরও পড়ুন : দিল্লি হিংসা নিয়ে অশান্ত সংসদ, হাতাহাতি লোকসভায়

সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, 'স্পিকারের টেবিল থেকে কাগজ ছিনিয়ে নেওয়াটা চেয়ারের প্রতি অত্যন্ত অসম্মানজনক। কংগ্রেসের সদস্যদের অনিয়মের বিষয়টি দেখার জন্য আমরা স্পিকারকে আর্জি জানিয়েছি।'

বন্ধ করুন