বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পণের পরিবর্তে মেয়েদের হস্টেল বানানোর জন্য ৭৫ লাখ দান কনের, মুগ্ধ নেটিজেনরা
পণের পরিবর্তে মেয়েদের হস্টেল বানানোর জন্য ৭৫ লাখ দান কনের, মুগ্ধ নেটিজেনরা  (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
পণের পরিবর্তে মেয়েদের হস্টেল বানানোর জন্য ৭৫ লাখ দান কনের, মুগ্ধ নেটিজেনরা (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

পণের পরিবর্তে মেয়েদের হস্টেল বানানোর জন্য ৭৫ লাখ দান কনের, মুগ্ধ নেটিজেনরা

ইতিমধ্যে হস্টেল তৈরির জন্য ১ কোটি টাকা দিয়ে দিয়েছেন কিশোর সিং। কিন্তু পুরো কাজ শেষ হওয়ার জন্য আরও ৭৫ লাখ টাকা দরকার ছিল।

‌পণের জন্য রাখা টাকা মেয়েদের হস্টেল তৈরির কাজে দিয়ে দিলেন বাবা। মেয়ের অনুরোধেই তাঁর এই সিদ্ধান্ত। মোট ৭৫ লাখ টাকা দান করেছেন তিনি। ইতিমধ্যে এই খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। এই কাজকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অনেকেই।

ঘটনাটি ঘটেছে রাজস্থানের বারমেঢ় শহরে। গত ২১ নভেম্বর প্রবীণ সিংয়ের বিয়ে হয় অঞ্জলি কানওয়ারের। অঞ্জলি কিশোর সিংয়ের মেয়ে। দৈনিক ভাস্করে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, বিয়ের আগেই অঞ্জলি তাঁর বাবাকে বলে রেখেছিলেন, তাঁর বিয়ের পণের জন্য রাখা টাকা যেন মেয়েদের হস্টেল তৈরির কাজে ব্যয় করা হয়। বিয়ের পর সেই মতোই কাজ হল। বিয়ের অনুষ্ঠান মিটে যাওয়ার পর তারাতারা মঠের প্রধান মহন্ত প্রতাপপুরীর কাছে যান। নিজের ইচ্ছের কথা লেখা একটি চিঠি তাঁর হাতে তুলে দেন। সেই চিঠিটিই সকলের সামনে পড়ে শোনান প্রতাপপুরী। এরপর মেয়ের হাতে একটি খালি চেক তুলে দেন কিশোর সিং। মেয়ের ইচ্ছা অনুযায়ী, ৭৫ লাখ টাকা হোস্টেল তৈরির কাজে দান করেন তিনি।

সংবাদপত্রে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ইতিমধ্যে হস্টেল তৈরির জন্য ১ কোটি টাকা দিয়ে দিয়েছেন কিশোর সিং। কিন্তু পুরো কাজ শেষ হওয়ার জন্য আরও ৭৫ লাখ টাকা দরকার ছিল। মেয়ের অনুরোধে সেই টাকাও ওই কাজে দান করলেন তিনি। স্বভাবতই অঞ্জলির এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন মহন্ত প্রতাপ পুরী। তাঁর মতে, কন্যাদানের সময়ে যেভাবে সামাজিক উন্নয়ন ও নারী শিক্ষার কাজে অর্থ দানের কথা ভাবা হয়েছে, তা খুব প্রশংসার যোগ্য। অনেকে এর থেকে উৎসাহিত হতে পারেন।

বন্ধ করুন