বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সাবধান! কাস্টমার কেয়ারের নামে ৮২ লাখ প্রতারণা,জেনে নিন কীভাবে টাকা হাওয়া করে ওরা
কাস্টমার কেয়ারের নাম করে নিজেদের নম্বর অনলাইনে দিয়ে রাখে প্রতারকরা। প্রতীকী ছবি (HT_PRINT)

সাবধান! কাস্টমার কেয়ারের নামে ৮২ লাখ প্রতারণা,জেনে নিন কীভাবে টাকা হাওয়া করে ওরা

  • ডেপুটি কমিশনার অফ পুলিশ (সহোদরা) বলেন, বিহারের বিগবাজার থেকে জিনিসপত্র, আইফোন, গোল্ড বার কেনা হয়েছে প্রতারণার টাকায়। সেগুলো দুমকায় পাঠানো হয়েছিল।

কাস্টমার কেয়ার সাপোর্ট দেওয়ার নাম করে প্রতারণার জাল ছড়ানোর অভিযোগ।সেই ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুজনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। ধৃতদের মধ্যে একজনের নাম অভিষেক কুমার ও অপরজনের নাম রাজু আনসারি। দুজনেরই বয়স ২২ বছর। ঝাড়খন্ডের দুমকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ঠিক কীভাবে ছড়ানো হয়েছিল প্রতারণার এই জাল? প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জেনেছে এই প্রতারণার মূল পান্ডা অভিষেক কুমার। কাস্টমার কেয়ার সাইটে সে নিজের নম্বর দিয়ে রেখেছিল। এদিকে সেই নম্বর দেখে কেউ ফোন করলে শুরু হয়ে যেত তাকে ফাঁদে ফেলার কাজ। এদিকে আনসারি আদতে আসানসোলের বাসিন্দা। সে সেখানে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলে।

পুলিশ সূত্রে খবর, makemytrip,com নামে একটি সংস্থার কাস্টমার কেয়ারের নম্বর খুঁজছিলেন এক ব্যক্তি। তখন তিনি অভিষেকের নম্বর পান। এরপরই তার সঙ্গে প্রতারণা করা হয় বলে অভিযোগ। বেড়ানোর টাকা রিফান্ড করার নাম করে তার ৪.৭৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারকরা। তাকে Anydesk App ডাউনলোড করতে বলেছিল। এরপর তাকে এসএমএস পাঠানো হয়েছিল। তারপরই HDFC ব্যাঙ্কের অ্যাকাউন্ট থেকে তার বিপুল টাকা হাওয়া হয়ে যায়।  এই অভিযোগ পেয়ে তদন্তে নামে পুলিশ। শেষ পর্যন্ত জানা গিয়েছে, প্রতারকদের ৮টি অ্যাকাউন্টে জমা হয়েছিল ৮২ লাখ টাকা।ওই অ্যাকাউন্ট ফ্রিজ করা হয়েছে।

ডেপুটি কমিশনার অফ পুলিশ (সহোদরা) বলেন, বিহারের বিগবাজার থেকে জিনিসপত্র, আইফোন, গোল্ড বার কেনা হয়েছে প্রতারণার টাকায়। সেগুলো দুমকায় পাঠানো হয়েছিল। এরপরই সেখানে পুলিশ অভিযানে নামে। অভিষেক পুলিশকে জানিয়েছে, গুগল অ্য়াডের মাধ্যমে ফ্লিপকার্ট, এয়ারলাইন্স, মেক মাই ট্রিপের কাস্টমার কেয়ার হিসাবে সে নিজের নম্বর দিয়েছিল।এরপর এনিডেস্ক অ্যাপের মাধ্যমে সে কারসাজি চালাত। 

 

বন্ধ করুন