বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > যৌনতার ওষুধ খেয়ে সেক্সের চেষ্টা, রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে খুন ৮০ বছরের ব্যক্তির
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস (HT Photo)
ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস (HT Photo)

যৌনতার ওষুধ খেয়ে সেক্সের চেষ্টা, রাজি না হওয়ায় স্ত্রীকে খুন ৮০ বছরের ব্যক্তির

ঘটনাটি গত ২৫ ডিসেম্বর ইতালির এক শহরের। নিউ ইয়র্ক পোস্টে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

যৌন উদ্দীপক ওষুধ খেয়ে শারীরিক সম্পর্ক করতে চাইলেন ৮০ বছরের বৃদ্ধ। তাতে নারাজ হওয়ায় স্ত্রীকে খুন করলেন স্বামী। এমনই অভিযোগ উঠেছে ইতালির এক শহরে। নিউ ইয়র্ক পোস্টে এই খবর প্রকাশিত হয়েছে।

বয়সের সঙ্গে যৌন উদ্দীপনা হ্রাস পায়। সেটাই স্বাভাবিক। কিন্তু অনেকেই প্রকৃতির এই নিয়মের বিরুদ্ধে ভায়াগ্রার মতো উদ্দীপক ওষুধ ব্যবহার করেন। সেই রকমই করেছিলেন অভিযুক্ত বৃদ্ধ ভিটো কাঙ্গিনি। অভিযোগ, ভায়াগ্রা গ্রহণের পর স্ত্রী নাতালিয়া কিরিচকক যৌন সম্পর্কে জোর করেন ভিটো। তাতে নারাজ হননি নাতালিয়া। তারপরেই রাগের বশে ভিটো তাঁর স্ত্রী'কে হত্যা করেন বলে অভিযোগ।

পুলিশি জেরায় ওই বৃদ্ধ জানিয়েছেন, স্ত্রীকে হত্যা করার পর তাঁর মধ্যে কোনও অনুতাপ হয়নি। রাতে তিনি ঘুমিয়েও পড়েন। সকালে পোষ্য সারমেয়কে নিয়ে প্রাতঃভ্রমণও করে আসেন। বেলা বাড়তেও নাতালিয়া কাজে না যাওয়ায় তাঁর বসের ফোন আসে। তাঁকেই ফোনে পুরোটা অকপট জানিয়ে দেন ভিটো। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতেই ভিটোর বাড়িতে আসে পুলিশ। তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। দেহ ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। জেরায় ভিটো জানিয়েছেন, বরাবরই স্ত্রীকে সন্দেহ করতেন তিনি। তাছাড়া স্ত্রী তাঁর থেকে প্রায় ২০ বছরের ছোট। এই নিয়েও হীনমন্যতায় ভুগতেন তিনি।

নাতালিয়া পেশায় শেফ ছিলেন। এক স্থানীয় রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন তিনি। রেস্তোরাঁর মালিক জানান, 'ওঁদের বাড়িতে দাম্পত্য কলহ রয়েছে বুঝতে পারতাম। কিন্তু বিষয়টা যে এই পর্যায়ে পৌঁছে যাবে, তা কখনও ভাবিনি।'

বন্ধ করুন