বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রতিবেশীর পোষ্য কুকুরকে 'ধর্ষণ', গ্রেফতার ৬৭ বছরের বৃদ্ধ
হরিয়ানায় প্রতিবেশীর পোষ্য কুকুরকে ধর্ষণের অভিযোগে ধৃত ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধ : ছবিটি প্রতীকী (প্রতীকী ছবি)
হরিয়ানায় প্রতিবেশীর পোষ্য কুকুরকে ধর্ষণের অভিযোগে ধৃত ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধ : ছবিটি প্রতীকী (প্রতীকী ছবি)

প্রতিবেশীর পোষ্য কুকুরকে 'ধর্ষণ', গ্রেফতার ৬৭ বছরের বৃদ্ধ

  • প্রমাণ হিসেবে ঘটনার ভিডিয়ো করে মোবাইলে তুলে রাখেন পোষ্যের মালিক

প্রতিবেশীর বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে গিয়ে পোষ্য কুকুরকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠল ষাটোর্ধ্ব বৃদ্ধের বিরুদ্ধে। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে হরিয়ানার গুরুগ্রামের সোহানা এলাকায়। 

অভিযোগ উঠেছে, খাবারের লোভ দেখিয়ে প্রতিবেশীর পোষ্য সারমেয়কে নিজের বাড়িতে তুলে নিয়ে যায় ওই ৬৭ বছরের বৃদ্ধ। তারপর তাকে ধর্ষণ করে ওই অভিযুক্ত। প্রতিবেশীদের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে হরিয়ানার পুলিশ। ঘটনা ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়।

অভিযোগকারী প্রতিবেশী মুকেশ জানিয়েছেন, তাঁর ঘরে দু'টি পোষ্য রয়েছে। তার মধ্যে থেকে একজন পুরুষ ও একজন মেয়ে কুকুর। হঠাৎ ২৮ সেপ্টেম্বর তার মধ্যে থেকে ভুরি নামের মেয়ে পোষ্যটি নিখোঁজ হয়ে যায়। তাকে খুঁজতে যান তিনি। তখনই তিনি প্রতিবেশী অভিযুক্ত বৃদ্ধ সুরেশের ঘর থেকে ভুরির গোঙানির আওয়াজ শুনতে পান। সেখানে গিয়ে দেখেন, ওই বৃদ্ধ ভুরির সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত রয়েছে। মুকেশ আরও জানিয়েছেন, সঙ্গে সঙ্গে তিনি পকেট থেকে মোবাইল ফোন বের করেন। তারপর পুরো ঘটনাটির ভিডিয়ো করে ফেলেন।

এই প্রসঙ্গে একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে মুকেশ বলেন, 'ভাগ্যিস আমি ভিডিয়োটা তুলেছিলাম, তা নাহলে, কিছুতেই প্রমাণ করতে পারতাম না যে, একজন বৃদ্ধ এই জঘন্যতম কাণ্ড ঘটিয়েছেন।'

পরের দিনই পুলিশের দ্বারস্থ হন নির্যাতিত পোষ্যের মালিক। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারা ও পশুর বিরুদ্ধে নির্মমতা রোধ আইনে মামলা রুজু করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে অভিযুক্ত ওই বৃদ্ধকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বন্ধ করুন