বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ৭০টি ঘুমের ওষুধ খেয়েছিলেন মহিলা, মৃত্যুর দোরগোড়া থেকে ফিরিয়ে আনল এম আর বাঙুর
নজির তৈরি করল এম আর বাঙুর হাসপাতাল। ছবি সৌজন্য–এএনআই।

৭০টি ঘুমের ওষুধ খেয়েছিলেন মহিলা, মৃত্যুর দোরগোড়া থেকে ফিরিয়ে আনল এম আর বাঙুর

  • শুরু হয় প্রতি মিনিটে নজরদারি। টানা ৫ দিন ধরে চলে মনিটরিং। এর সঙ্গেই টেকনোলজিস্টরা ওই মহিলার চেস্ট ফিজিওথেরাপি করাও শুরু করেন। এরপর ধীরে ধীরে চোখ খোলা শুরু করেন ওই মহিলা। কার্যত কোমায় আচ্ছন্ন হয়ে গিয়েছিলেন ওই মহিলা।

একটা দুটো নয়, একেবারে ৭০টি ঘুমের ওষুধ খেয়ে ফেলেছিলেন টালিগঞ্জের বাসিন্দা এক মহিলা। আচ্ছন্ন হয়ে গিয়েছিলেন মহিলা। এরপর টালিগঞ্জ এম আর বাঙুল হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। একেবারে যমে-মানুষে টানাটানি। যে কোনও সময় হৃদযন্ত্র বন্ধ হয়ে যেতে পারে। গত ১৩ই এপ্রিল ভর্তি করা হয়েছিল মহিলাকে। কিন্তু মহিলা কার্যত কোমা আচ্ছন্ন অবস্থায় ছিলেন। তাঁকে ফের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনাটাই তখন চিকিৎসকের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ।

ক্রিটিকাল কেয়ার ইউনিটে ভর্তি রাখা হয় ওই মহিলাকে। সেখানেই ভেন্টিলেশনে রেখে চিকিৎসা চলতে থাকে। কার্যত মৃত্যুর দোরগোড়ায় চলে গিয়েছিলেন ওই মহিলা। নির্দিষ্ট সময় অন্তর অ্যান্টিডোট দেওয়া শুরু করেন চিকিৎসকরা। এতে কিছুটা হলেও কাজ হতে শুরু করে। এছাড়া অন্যান্য ওষুধও দেওয়া শুরু করেন চিকিৎসকরা। এর সঙ্গেই শুরু হয় প্রতি মিনিটে নজরদারি। টানা ৫ দিন ধরে চলে মনিটরিং। এর সঙ্গেই টেকনোলজিস্টরা ওই মহিলার চেস্ট ফিজিওথেরাপি করাও শুরু করেন। এরপর ধীরে ধীরে চোখ খোলা শুরু করেন ওই মহিলা

এদিকে ছুটি পাওয়ার আগে ভিডিও বার্তা দিয়েছেন ওই মহিলা। সেখানে তিনি হাসপাতাল ও চিকিৎসকের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। হাসপাতাল সূত্রে খবর, ষষ্ঠ দিন থেকে ওই মহিলা বাড়ি যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। তাঁর মানসিক কাউন্সেলিংও করা হয়েছে। ১৯শে এপ্রিল তিনি ছুটি পেয়ে ছেলের হাত ধরে বাড়ি ফেরেন।

বন্ধ করুন