বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > দেড় মাস আগে রণক্ষেত্রের চেহারা নেওয়া ঢলপুর থেকে ৫৬২ পরিবারকে উচ্ছেদ অসম সরকারের
ঢলপুর থেকে ৫৬২ পরিবারকে উচ্ছেদ করল অসম সরকার (ফাইল ছবি পিটিআই) (HT_PRINT)
ঢলপুর থেকে ৫৬২ পরিবারকে উচ্ছেদ করল অসম সরকার (ফাইল ছবি পিটিআই) (HT_PRINT)

দেড় মাস আগে রণক্ষেত্রের চেহারা নেওয়া ঢলপুর থেকে ৫৬২ পরিবারকে উচ্ছেদ অসম সরকারের

  • সরকারের দাবি, ঢলপুরে ৭৭ হাজার ৪২০ বিঘা সংরক্ষিত জমি রয়েছে তাদের। তবে বিগত প্রায় দুই দশক ধরে ওই এলাকা বেআইনিভাবে দখল করে রাখা হয়েছে।

অসমের দারাং জেলার ঢলপুর অঞ্চলে প্রায় দেড় মাস আগে রক্তারক্তি কাণ্ড ঘটেছিল। সেই ঢালপুরেই ফের উচ্ছেদ অভিযান চালাল অসম পুলিশ। দেড় মাস আগে সরকারি জমি থেকে জবরদখলকারীদের উচ্ছেদ করতে গিয়ে গুলি চালাতে হয়েছিল পুলিশকে। ঘটনায় ২ জনের মৃত্য হয়েছিল। ৯ পুলিশ সহ মোট ১৮ জন জখম হয়েছিল। সেই ঢলপুর থেকে এবার ৫৬২টি পরিবারকে উচ্ছেদ করল অসম সরকার।

সরকারের দাবি, ঢলপুরে ৭৭ হাজার ৪২০ বিঘা সংরক্ষিত জমি রয়েছে তাদের। তবে বিগত প্রায় দুই দশক ধরে ওই এলাকা বেআইনিভাবে দখল করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ। এই বেআইনি দখল উচ্ছেদ করতে গেলেই বিপত্তি ঘটেছিল দেড় মাস আগে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছানোর পর তাদের লক্ষ্য করে জনতা ইট ছুড়তে থাকে বলে অভিযোগ উঠেছিল। এতে ৯ জন পুলিশকর্মী জখম হয়েছিলেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গুলি চালায় পুলিশও। স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিশের গুলিতে প্রাণ হারায় দুই জন।

দরংয়ের চর অঞ্চলে বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে বসবাস করছিলেন অনুপ্রবেশকারীরা। তবে মূলত ব্রহ্মপুত্রের এই অঞ্চল সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষেরা বসবাস করেন। অভিযোগ উঠেছে, অনুপ্রবেশকারীদের মধ্যে অনেকেই বাংলাদেশ থেকে অবৈধভাবে এখানে এসে বসবাস করছিলেন।

উচ্ছেদ অভিযান প্রসঙ্গে হিমন্ত বিশ্ব শর্মার দাবি, '২০১২ সাল থেকে এই দখলকারীরা বনের প্রায় অর্ধেক গাছ কেটে ফেলেছিল এবং আদা চাষ শুরু করেছিল যার থেকে বার্ষিক 25 কোটি টাকা আসছিল। সোমবারের উচ্ছেদ শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে। গরুখুটির (দরং জেলায়) পরে এটি একটি সফল অভিযান। এরকম আরও অভিযান অব্যাহত থাকবে।'

বন্ধ করুন