বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Aaftab Amin Poonawala: পলিগ্রাফ টেস্ট পিছিয়ে গেল শ্রদ্ধা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আফতাব পুনাওয়ালার, নেপথ্যে কোন কারণ?

Aaftab Amin Poonawala: পলিগ্রাফ টেস্ট পিছিয়ে গেল শ্রদ্ধা হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত আফতাব পুনাওয়ালার, নেপথ্যে কোন কারণ?

শ্রদ্ধা হত্যাকাণ্ডে নয়া মোড়।

দিল্লিতে নারকীয় হত্যাকাণ্ডে ২৮ বছর বয়সী আফতাব পুনাওয়ালা অভিযুক্ত। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, শ্রদ্ধাকে হত্যার পর ৩৫ টি টুকরো করে তাঁর দেহ দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দিয়েছে আফতাব। ঘটনা নিয়ে পুলিশি জেরার মুখে বহু তথ্য নিজেই স্বীকার করে নিয়েছে আফতাব বলে খবর। জানা গিয়েছে, ১৮ মে শ্রদ্ধাকে হত্যা করে আফতাব।

শ্রদ্ধা ওয়াকার হত্যা মামলায় ক্রমেই একের পর এক চাঞ্চল্যকর মোড় আসতে শুরু করেছে। সদ্যই দিল্লির আদালত অনুমতি দেয় আফতাবের ওপর পলিগ্রাফ টেস্টের। তবে, জানা যাচ্ছে, শ্রদ্ধা হত্যায় অভিযুক্ত আফতাবের যে পলিগ্রাফ টেস্ট বৃহস্পতিবার হওয়ার কথা থাকলেও, তা হবে না। বিভিন্ন সূত্রের খবর, আফতাবের শারীরিক পরিস্থিতি ভালো নেই। সেই কারণেই এই টেস্ট পিছিয়ে দেওয়া হল।

প্রসঙ্গত, দিল্লিতে নারকীয় হত্যাকাণ্ডে ২৮ বছর বয়সী আফতাব পুনাওয়ালা অভিযুক্ত। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, শ্রদ্ধাকে হত্যার পর ৩৫ টি টুকরো করে তাঁর দেহ দিল্লির বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে দিয়েছে আফতাব। ঘটনা নিয়ে পুলিশি জেরার মুখে বহু তথ্য নিজেই স্বীকার করে নিয়েছে আফতাব বলে খবর। জানা গিয়েছে, ১৮ মে শ্রদ্ধাকে হত্যা করে আফতাব। তারপর থেকে শ্রদ্ধার সঙ্গে তাঁর পরিবারের যোগাযোগ না হওয়াতেই সন্দেহ গাঢ় হয়। পুলিশের দ্বারস্থ হন শ্রদ্ধার বাবা। এরপরই তদন্তে নামে পুলিশ। বেরিয়ে আসে আসল সত্য। এদিকে, জানা যআচ্ছে, মঙ্গলবার এফএসএল-এ মনোবিজ্ঞানীরা  আফতাবের একবার পলিগ্রাফ টেস্ট করেন। ততক্ষণে আদালতের নির্দেশের পর অভিযুক্ত আফতাব সেই টেস্ট সংগঠিত  সায় দেয়। তারপরই সম্পন্ন হয় আফতাবের পলিগ্রাফ টেস্ট। এই টেস্টের আগে আফতাবের মেডিক্যাল টেস্ট হয়। তাতে বিশেষজ্ঞরা অনুমতি দিতেই পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়। মূলত, এই টেস্টের মাধ্যমে অভিযুক্তের থেকে সত্যি মিথ্যা যাচাই করা হয়। প্রসঙ্গত, পলিগ্রাফ টেস্টে যা উঠে আসে, তা স্বীকারোক্তি হিসাবে ধরা হয় না।

মাদ্রাসায় নতুন ড্রেস কোড! বিজেপি শাসিত এই রাজ্যে নয়া বিধি কবে থেকে লাগু?

এই পলিগ্রাফ টেস্ট করা হয় শুধু মাত্র তদন্তের স্বার্থে। তাতে কোনও ক্রমে কোনও 'লিড' বেরিয়ে এলে সেই সূত্র ধরে চলে তদন্ত। এদিকে, শ্রদ্ধা ওয়াকার হত্যা মামলার আগে ঘটে যাওয়া ঘটনাও এই মামলায় বেশ কিছুটা তাৎপর্যবাহী। ২ বছর আগে মহারাষ্ট্রের পলঘরে শ্রদ্ধা যে অভিযোগ দায়ের করেন, তাতে রয়েছে যে, শ্রদ্ধা ভয় পেয়েছিলেন যে আফতাব তাঁকে মেরে দেবেন। এমনকি তাঁর দেহ টুকরো করে ফেলে দেবে আফতাব বলেও আতঙ্ক ছিল শ্রদ্ধার। এপর পুলিশ দিল্লিতে শ্রদ্ধাদের বাসভবনে যায়। তখন শ্রদ্ধা জানান যে, তিনি রাগের বশে ওই অভিযোগ দায়ের করেছিলেন। ফলে সেই মামলা তখনই বন্ধ হয়। এরপরবর্তী কালে ২০২২ সালে ১৮ মে শ্রদ্ধাকে হত্যা করা হয়, বলে জানাচ্ছে পুলিশ রিপোর্ট।

বন্ধ করুন