বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > শ্রদ্ধার দেহ কাটতে একাধিক অস্ত্র ব্যবহার করেছিল আফতাব, করাতটা কোথায় গেল? Report

শ্রদ্ধার দেহ কাটতে একাধিক অস্ত্র ব্যবহার করেছিল আফতাব, করাতটা কোথায় গেল? Report

আফতাব ও শ্রদ্ধার মধ্যে ঝগড়া হয়েছিল ১৮ মে। এরপরই শ্বাসরুদ্ধ করে শ্রদ্ধাকে খুন করে আফতাব। পরে প্রেমিকার দেহের ৩৫ টুকরো করে আফতাব। ১৮ দিন ধরে সেই দেহের টুকরোগুলি বিভিন্ন জায়গায় ফেলে আসে আফতাব।

দিল্লি পুলিশের একটি টিম মুম্বইয়ের কাছে একটি মোবাইলের খোঁজ চালাচ্ছে। পুলিশ শ্রদ্ধা ও আফতাবের বন্ধুদের সঙ্গেও কথাবার্তা বলছেন। পাশাপাশি যে ফ্ল্যাটে তারা থাকতেন তার মালিকের সঙ্গেও কথা বলছেন তদন্তকারীরা। মুম্বইতে ক্যাম্প করে তদন্ত চালাচ্ছে দিল্লির পুলিশ।

অনিরুদ্ধ ধর

লিভ ইন পার্টনার শ্রদ্ধা ওয়াকারকে খুন করে ৩৫ টুকরো করে ফেলেছিল আফতাব পুনাওয়ালা। সূত্রের খবর, আফতাব একাধিক অস্ত্র ব্য়বহার করেছিল শ্রদ্ধার দেহ কাটার জন্য। নিজে মুখেই নাকি সে কথা তদন্তকারীদের কাছে স্বীকার করেছে আফতাব। ইতিমধ্য়েই পাঁচটি বড় ছুরি তদন্তকারীরা বাজেয়াপ্ত করেছেন। সেগুলি ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। দিল্লি পুলিশকে উদ্ধৃত করে এমনটাই জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা।

এদিকে পুলিশ সূত্রে খবর, যে করাত দিয়ে দেহ কাটা হয়েছিল সেটা এখনও পাওয়া যায়নি। দিল্লি পুলিশের এক আধিকারিক পিটিআইকে জানিয়েছেন, যদি এই ছুরিগুলি অপরাধের কাজে লাগানো হয়ে থাকে তা ফরেনসিক পরীক্ষায় উঠে আসবে। সেটাও পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে।

অভিযোগ উঠেছে আফতাব শ্রদ্ধাকে প্রথমে শ্বাসরোধ করে খুন করে। এরপর করাত দিয়ে শরীরকে ৩৫ টুকরো করে ফেলে। এরপর ৩০০ লিটারের ফ্রিজে সেই টুকরোগুলিকে রেখে দিয়েছিল আফতাব।

ইতিমধ্য়েই দিল্লি পুলিশের একটি টিম মুম্বইয়ের কাছে একটি মোবাইলের খোঁজ চালাচ্ছে। পুলিশ শ্রদ্ধা ও আফতাবের বন্ধুদের সঙ্গেও কথাবার্তা বলছেন। পাশাপাশি যে ফ্ল্যাটে তারা থাকতেন তার মালিকের সঙ্গেও কথা বলছেন তদন্তকারীরা। মুম্বইতে ক্যাম্প করে তদন্ত চালাচ্ছে দিল্লির পুলিশ।

 

বন্ধ করুন