বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অভিষেকের মন্তব্যে শোরগোল কংগ্রেসের অন্দরে, প্রভাব পড়তে পারে বিরোধী ঐক্যে
ইডির দফতর থেকে বেরিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Photo by Raj K Raj / Hindustan Times) (Hindustan Times)
ইডির দফতর থেকে বেরিয়ে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Photo by Raj K Raj / Hindustan Times) (Hindustan Times)

অভিষেকের মন্তব্যে শোরগোল কংগ্রেসের অন্দরে, প্রভাব পড়তে পারে বিরোধী ঐক্যে

  • ইতিমধ্যে কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী এনিয়ে মুখ খুলেছেন।

বিজেপিকে ভয় পাচ্ছে কংগ্রেস। ইডির জেরা শেষে দিল্লিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কার্যত ইঙ্গিতবাহী এই মন্তব্যকে ঘিরে কংগ্রেসের অন্দরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে জাতীয় ক্ষেত্রে বিজেপিকে রুখতে কংগ্রেস, তৃণমূল সহ একাধিক রাজনৈতিক দল কাছাকাছি আসার চেষ্টা করছে। তখন অভিষেকের এই বেফাঁস মন্তব্য বিরোধী ঐক্যে ফাটল ধরাতে পারে। ইতিমধ্যে কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী এনিয়ে মুখ খুলেছেন। এবার দেখা যাক ঠিক কী বলেছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়?

বিজেপিকে ভয় পাচ্ছে কংগ্রেস। ইডির জেরা শেষে দিল্লিতে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কার্যত ইঙ্গিতবাহী এই মন্তব্যকে ঘিরে কংগ্রেসের অন্দরে ব্যাপক শোরগোল পড়ে গিয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে জাতীয় ক্ষেত্রে বিজেপিকে রুখতে কংগ্রেস, তৃণমূল সহ একাধিক রাজনৈতিক দল কাছাকাছি আসার চেষ্টা করছে। তখন অভিষেকের এই বেফাঁস মন্তব্য বিরোধী ঐক্যে ফাটল ধরাতে পারে। ইতিমধ্যে কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী এনিয়ে মুখ খুলেছেন। এবার দেখা যাক ঠিক কী বলেছিলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়?

|#+|

 

কয়লাকাণ্ড নিয়ে প্রায় ৯ ঘণ্টা ইডির জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে বেরিয়ে এসে তিনি বলেন,  'কংগ্রেস বা অন্যান্য রাজনৈতিক দলের মতো বিজেপি যদি ভাবে তৃণমূলও ভয় পেয়েছে, মাথা নত করবে অথবা পরাজয় স্বীকার করে নেবে তবে তাদেরকে বলতে চাইছি তৃণমূল নতুন উদ্দীপনায় কাজ করছে। সমস্ত বিজেপি শাসিত রাজ্যে আমরা শাখা বিস্তার করছি। যা পারেন করে নিন। '

এদিকে অভিষেকের এই বক্তব্য প্রসঙ্গে কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, 'এই ধরনের মন্তব্য ভীষন আপত্তিকর। এতে বিজেপিরই সুবিধা হবে। বিজেপির বিরুদ্ধে লড়ার স্পিরিট তৃণমূলের থাকতে পারে, কিন্তু কংগ্রেসকে অপমান করার অধিকার তাকে কেউ দেয়নি। অনভিজ্ঞ লোকজনই এরকম নিজের ঢাক নিজে পেটায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো অভিজ্ঞ নেত্রী এই ধরনের মন্তব্য করতেন না।মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এটা ব্যাখ্যা করা দরকার। কারণ বিরোধী ঐক্য় নির্ভর করছে এটার উপর।' তবে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘একজনের মন্তব্য বিরোধী ঐক্যে প্রভাব ফেলবে না। বিজেপির উদ্দেশ্যপ্রণোদিত পদক্ষেপে তৃণমূল মাথা নত করবেন না এটাই অভিষেক বার্তা দিতে চেয়েছেন।’

 

বন্ধ করুন