বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গো-রক্ষার দোহাই দিয়ে গণধোলাই হিন্দুত্ব বিরোধী, ঐক্যের বার্তা RSS প্রধান ভাগবতের
রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সমিতির প্রধান মোহন ভাগবত (ছবি : পিটিআই) (PTI)
রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সমিতির প্রধান মোহন ভাগবত (ছবি : পিটিআই) (PTI)

গো-রক্ষার দোহাই দিয়ে গণধোলাই হিন্দুত্ব বিরোধী, ঐক্যের বার্তা RSS প্রধান ভাগবতের

  • মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের অনুষ্ঠিত একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সমিতির প্রধান মোহন ভাগবত।

রবিবার 'হিন্দুস্তানি প্রথম, হিন্দুস্তান প্রথম' শিরোনামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চ। সেই অনুষ্ঠানের অন্যতম মূল বক্তা ছিলেন রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সমিতির প্রধান মোহন ভাগবত। আর এদিন নিজের হিন্দু কট্টরপন্থী ভাবমূর্তি ভেদ করে সর্ব ধর্ম সমন্বয়ের বার্তা দিলেন মোহন ভাগবত। এদিন মোহন ভাগবত জানান, হিন্দু-মুসলমানের মধ্যে যদি কোনও মতানৈক্য থেকেও থাকে, তবে তা আলোচনার মাধ্যমে সমাধান সম্ভব।

সংখ্যালঘুদের উপর গো-রক্ষকদের বিরুদ্ধে যে হামলার অভিযোগ ওঠে, তা নিয়েও মুখ খুলেছেন সংঘ প্রধান। এদিন মোহন ভাগবত বলেন, 'গরুকে ভারতে পুজো করা হয়। তবে যে বা যাঁরা গো-রক্ষার দোহাই দিয়ে গণরোষ তৈরি করে কাউকে কাউকে আক্রমণ করছেন, তাঁরাও হিন্দুত্বের বিরোধী। তবে গণরোষের বেশ কিছু ভুয়ো অভিযোগও দায়ের হয়েছে সময়ে সময়ে।' তিনি আরও বলেন, 'মুসলিমরা ভারতে বিপদে আছেন, এই ধরনের মন্তব্যের ফাঁদে পা দেবেন না। হিন্দু-মুসলিমে পার্থক্য আছে, তবে শেষ অবধি তারা এক। সমস্ত ভারতীয় একই উৎস থেকে এসেছে।' মোহন ভাগবতের স্পষ্ট বক্তব্য, 'কেউ কিভাবে পুজো, প্রার্থনা করছেন, তা দিয়ে মানুষে মানুষে বিভাজন করা যায় না। কেউ যদি বলেন, মুসলিমদের ভারতে থাকা উচিত নয়, তাহলে তিনি হিন্দু নন।'

মোহন ভাগবত আরও বলেন, 'আমরা গণতন্ত্রে বাস করি। এখানে হিন্দু বা মুসলিম, কারওরই প্রাধান্য থাকতে পারে না। প্রাধান্য পাবে শুধু ভারতীয়রা। আমাদের দেশকে শক্তিশালী করতে কাজ করতে হবে। সমাজের উন্নয়নে কাজ করতে হবে।' আরএসএস প্রধান আরও বলেন, 'দেশবাসীর ঐক্য ছাড়া কখনই দেশের প্রকৃত উন্নয়ন সম্ভব নয়। ঐক্যের সূত্রেই জাতীয়তাবাদ ও দেশপ্রেমের প্রসার দরকার। দেশের পূর্বপুরুষদের যে ঐতিহ্য তাঁকে রক্ষা করাই লক্ষ্য হওয়া উচিত।'

বন্ধ করুন