বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ধনে চুরির মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করতেই ২১ বছর পার,আজব কাণ্ড মধ্যপ্রদেশে
কেন এত ঢিলেমি? তদন্তের নির্দেশ (প্রতীকী ছবি)
কেন এত ঢিলেমি? তদন্তের নির্দেশ (প্রতীকী ছবি)

ধনে চুরির মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করতেই ২১ বছর পার,আজব কাণ্ড মধ্যপ্রদেশে

 সরকারি গুদামের ম্যানেজারের বিরুদ্ধে অভিযোগ।

মধ্যপ্রদেশের গুনা জেলার একটি সরকারি গুদাম থেকে ৪৭১ বস্তা ধনে চুরি হয়েছিল বলে অভিযোগ। সেই ঘটনা হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। এরপর ২০০০ সালে বীণাগঞ্জ থানায় এব্যাপারে অভিযোগ দায়ের হয়। তারপর চরকির মতো এই দরজা থেকে ওই দরজায় ঘুরেছেন কৃষক ভেরুলাল সাহু। কার কাছে না আবেদন করেননি? প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং, উমা ভারতী, কমল নাথ, মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান সহ বিভিন্ন মহলে আবেদন করেছেন ওই কৃষক। কিন্তু তাঁর দাবি বছরের পর বছর চলে গিয়েছে। কাজের কাজ কিছু হয়নি। গুদামের ম্যানেজার বিজয় কুমার আগরওয়ালের বিরুদ্ধেই ফসল চুরির অভিযোগ উঠেছে।

তাঁর অভিযোগ, ১৯৯৯ সালে তিনি ও তাঁর শ্বশুর ৪৭১ বস্তা ধনে ওই গুদামে রেখেছিলেন। একজন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ১ লক্ষ টাকা লোনও নিয়েছিলেন তিনি। আগরওয়ালই ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গে তাঁর পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। লোন নেওয়ার বিনিময়ে ১০০ বস্তা ফসল বন্ধক রাখেন তিনি। এদিকে পরে ফসল বিক্রি করতে গিয়ে দেখেন আগরওয়াল সই জাল করে তাঁর সব ফসল বিক্রি করে দিয়েছে। এরপর এনিয়ে পুলিশের কাছেও অভিযোগ জানান তিনি। কিন্তু এরপরই শুরু হয় হয়রানি। কৃষক বলেন, বার বার আগরওয়ালকে বলেছি টাকা ফেরৎ দাও। কিন্তু সে দেয়নি। এরপর ২০১৫ সালে সে বলে ২ লাখ টাকা নিয়ে কেস তুলে নাও। কিন্তু মর্যাদার লড়াইতে তখন পিছিয়ে আসতে চাননি সাহু। ইতিমধ্যেই অন্তত ১৫জন পুলিশ সুপারের সঙ্গে তিনি দেখা করেছেন। এরপর গুনার পুলিশ সুপার হয়ে আসেন রাজীব মিশ্র। বকেয়া কেসগুলি খতিয়ে দেখা শুরু করেন তিনি। এরপরই সাহুর মামলাটিতে নথিভুক্ত করে তদন্ত শুরুর নির্দেশ দেন তিনি। এর সঙ্গে কেন দুদশক লাগল মামলা রুজু করতে তারও তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন