বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভবানীপুরে BJP-র ৫৮,০০০-র ‘ক্ষত’ গভীর হল ওড়িশায়, উপ-নির্বাচনে মার্জিন বাড়িয়ে জয় BJD-র
পিপিলি বিধানসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচনে জয়ের পর উচ্ছ্বাস বিজেডির। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
পিপিলি বিধানসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচনে জয়ের পর উচ্ছ্বাস বিজেডির। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

ভবানীপুরে BJP-র ৫৮,০০০-র ‘ক্ষত’ গভীর হল ওড়িশায়, উপ-নির্বাচনে মার্জিন বাড়িয়ে জয় BJD-র

  • বিজেপি এবং বিজেডি প্রার্থীর মধ্যে লড়াই হলেও কার্যত ধুয়েমুছে সাফ হয়ে গিয়েছে কংগ্রেস।

পশ্চিমবঙ্গের উপ-নির্বাচনে বড়সড় হারের (ভবানীপুরে ৫৮,৮৩৫ ভোটে হার) মুখে পড়তে হয়েছে। সেই ক্ষত আরও গভীর করে তুলল ওড়িশা। পিপিলি বিধানসভা কেন্দ্রের উপ-নির্বাচনে হেরে গেল বিজেপি। মার্জিন বাড়িয়ে জিতল বিজেডি। রাজনৈতিক মহলের মতে, যে ভোটের মাধ্যমে আগামী বছরের পঞ্চায়েত এবং পুরসভা নির্বাচনের আগে একপ্রস্থ প্রস্তুতি ঝালিয়ে নিল বিজেডি।

প্রাক্তন মন্ত্রী প্রদীপ মহারথী সাতবার জিতেছিলেন পিপিলি আসন থেকে। যিনি গত বছর অক্টোবরে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। সেই আসনে তাঁর ছেলে রুদ্রপ্রতাপ ২০,৯১৬ ভোট জিতেছেন। ২০১৯ সালের বিধানসভা নির্বাচনে যে ব্যবধানে জয় পেয়েছিল বিজেডি, সেই মার্জিন আরও বাড়িয়েছেন প্রদীপের ছেলে। দ্বিতীয় স্থানে শেষ করেছে বিজেপি। ৭৬,০৫৬ ভোট (৪২.০৪ শতাংশ) পেয়েছেন বিজেপির প্রার্থী আশ্রিত পট্টনায়ক। রুদ্রপ্রতাপ পেয়েছেন ৫৩.৬ শতাংশ ভোট (৯৬,৯৭২ ভোট)। বিজেপি এবং বিজেডি প্রার্থীর মধ্যে লড়াই হলেও কার্যত ধুয়েমুছে সাফ হয়ে গিয়েছে কংগ্রেস। মাত্র ৪,২৬১ ভোট (২.৩৬ শতাংশ) গিয়েছে কংগ্রেসের ঝুলিতে। তার জেরে জামানত জব্দ হয়েছে কংগ্রেসের প্রার্থীর।

তারইমধ্যে স্বভাবতই উচ্ছ্বসিত রুদ্রপ্রতাপ। বাবার থেকে মার্জিন বাড়িয়ে জয়ের পর তিনি জানান, বাবার মৃত্যুর পর পিপলির মানুষ প্রায় এক বছর ধরে বিধায়কের জন্য অপেক্ষা করেছিলেন। অবশেষে শূন্যস্থান পূরণ হল। ‘ভোটাররা আমার ভগবান। আমি তাঁদের সেবক। আমি এখানে জয় উদযাপনের জন্য আসিনি। বরং আমার কাজে মনোনিবেশ করব। আমার প্রয়াত বাবা যে কাজ শুরু করেছিলেন, তা পূরণ করব। সমস্যা সমাধানের জন্য সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে যাব।’

বন্ধ করুন