বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বুল্লি বাই-বিতর্কের পর হিন্দু মহিলাদের টার্গেট টেলিগ্রাম চ্যানেলে, গৃহিত পদক্ষেপ
মহিলাদের টার্গেট করে নয়া বিতর্কে টেলিগ্রাম চ্যানেলে। (প্রতীকী ছবি)
মহিলাদের টার্গেট করে নয়া বিতর্কে টেলিগ্রাম চ্যানেলে। (প্রতীকী ছবি)

বুল্লি বাই-বিতর্কের পর হিন্দু মহিলাদের টার্গেট টেলিগ্রাম চ্যানেলে, গৃহিত পদক্ষেপ

  • মহিলাদের টার্গেট করে নয়া বিতর্কে টেলিগ্রাম চ্যানেলে। 

বিতর্কিত 'বুল্লি বাই' অ্যাপের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই দায়ের হয়েছে অভিযোগ। এমন অ্যাপ ঘিরে ঘিরে চরম সমালোচনা উঠে আসে বিভিন্ন মহল থেকে। এরপর সেই বিতর্কের রেশ কাটতে না কাটতেই উঠে এল আরও এক টেলিগ্রাম চ্যানেলের নাম। যেখানেও নিশানায় মহিলারা। এবার হিন্দু মহিলাদের নিশানা করে অশ্লীল বিষয় বস্তু তুলে ধরার অভিযোগ উঠল এই টেলিগ্রাম চ্যানেলের বিরুদ্ধে। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে এই চ্যানেলে ব্লক করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

বিখ্যাত ইউটিউবার অনশুল সক্সেনা এই টেলিগ্রাম চ্যানেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। যার প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণো জানিয়েছেন, এই টেলিগ্রাম চ্যানেল বন্ধ করা হয়েছে। এই মুহূর্তে পুলিশের সঙ্গে মিলে চ্যানেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি। হিন্দু মহিলাদের টার্গেট করা এই চ্যানেল ২০২১ সালে শুরু হয় বলে জানা গিয়েছে। উল্লেখ্য, দেশে ইতিমধ্যেই একাধিক বিতর্কিত অ্যাপ ও ফেসবুক পেজের নাম উঠে এসেছে, যেখানে ক্রমাগত মহিলাদের টার্গেট করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, যে বিতর্কিত বুল্লি বাই অ্যাপ ঘিরে সমালোচনার ঝড় উঠেছিল , সেই অ্যাপে মুসলিম মহিলাদের টার্গেট করা হত। এক ভার্চুয়াল নিলামে তাঁদের ছবি রাখা হত। আর সেই নিলামে যাতে পুরুষরা আগ্রহী হন,তার চেষ্টা করা হত। এদিকে এই অ্যাপের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ইন্ডিয়ান কম্পিউটার ইমার্জেন্সি রেসপন্স টিম ময়দানে নেমেছে। তারা গোটা পর্বটি খতিয়ে দেখছে। তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক সূত্রের খবর, গিটহাব, টুইটার, দিল্লি পুলিশ, মুম্বই পুলিশ এই গোটা মামলায় একযোগে কাজ করছে। এদিকে, ফেসবুকে এই ধরনের অশ্লীল পেজকে নিয়েও কোমর কষছে কেন্দ্র। কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর এই সমস্ত পেজ নিয়ে 'মেটা'র কাছে অভিযোগ জানানো হয়েছে, আর পেজ বন্ধ করার আর্জি জানানো হয়।

এর আগে দিল্লি সাইবার সেলের কাছে এক সাংবাদিক 'বুল্লি বাই' অ্যাপ নিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি বলেন, তাঁর ছবি অ্যাপে ভুলভাবে ব্যবহার করে অশ্লীল বার্তা দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও সেখানে মুসলিম মহিলাদের নিয়ে কুরুচিকর , অপমানজনক বক্তব্য পেশ করা হচ্ছে। এমন মামলা দিল্লি ও মুম্বই পুলিশের কাছে দায়ের হয়। এর আগে 'সুল্লি ডিল' নামেও একটি মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ ওঠে। সেখানে মহিলাদের ছবি চুরি করে তা পোস্ট করে অশ্লীল মন্তব্য করা হত, বলে অভিযোগ দায়ের হয়।

বন্ধ করুন