বাড়ি > ঘরে বাইরে > পুরো কাশ্মীর ও জুনাগড়কে অন্তর্ভুক্ত করে পাকিস্তানের ম্যাপ প্রকাশ করলেন ইমরান
ইমরান খান (REUTERS)
ইমরান খান (REUTERS)

পুরো কাশ্মীর ও জুনাগড়কে অন্তর্ভুক্ত করে পাকিস্তানের ম্যাপ প্রকাশ করলেন ইমরান

  • ক্যাবিনেট বৈঠকের পরেই সাংবাদিক সম্মেলনে ইমরান খান বলেন যে এটি পাকিস্তানের ইতিহাসে সবচেয়ে ঐতিহাসিক দিন

সমগ্র কাশ্মীরকে অন্তর্ভুক্ত করে পাকিস্তানের নয়া ম্যাপ প্রকাশ করলেন ইমরান খান। ৩৭০ ধারা অবলুপ্তির বর্ষপূর্তির প্রাক্কালে ইমরানেই এই সিদ্ধান্ত বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। এই ম্যাপে গুজরাতের জুনাগড়কেও জুড়ে নিয়েছে পাকিস্তান! এই ম্যাপের কোনও আইনি ভিত্তি বা রাজনৈতিক স্বীকৃতি নেই বলে জানিয়েছে ভারত। একই সঙ্গে পাকিস্তানের স্বরূপ এতে প্রকাশ পেয়েছে বলে ভারত জানিয়েছে। 

ক্যাবিনেট বৈঠকের পরেই সাংবাদিক সম্মেলনে ইমরান খান বলেন যে এটি পাকিস্তানের ইতিহাসে সবচেয়ে ঐতিহাসিক দিন। এই প্রথমবার ভারতের কাশ্মীরকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে পাকিস্তানের ম্যাপে। তিনি বলেন যে পাকিস্তানের সব রাজনৈতিক দলের এতে সায় আছে। এটি ভারতীয় সরকারের গত বছরে নেওয়া সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধেও এই ম্যাপ একটি প্রতিবাদ বলে জানান ইমরান খান। 

ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক সূত্রে  এটিকে ম্যাপের মাধ্যমে ভুলভাল স্বপ্ন দেখা বলে বর্ণনা করা হয়েছে। এটিকে রাজনৈতিক ভাবে অবাস্তব একটি মানচিত্র বলে জানিয়েছে ভারত। একই সঙ্গে এটির কোনও আইনি ভিত্তি বা আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি নেই, বলেছে মোদী সরকার। এতে যে পাকিস্তানের অভিসন্ধি অন্যের জমি দখল করার সন্ত্রাসবাদের মাধ্যমে, সেটিই সবার সামনে এসে যাচ্ছে এই কথা বলেছে ভারত। 

 অন্যদিকে পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি সারা দেশকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন অভূতপূর্ব সিদ্ধান্ত নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। প্রথমবার বিশ্বের কাছে পাকিস্তানের অবস্থান স্পষ্ট করে বলা হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।  ভারতের অন্তর্গত কাশ্মীর ছাড়াও গুজরাতের জুনাগড়, মানবতার এবং স্যার ক্রিককেও ম্যাপের অন্তর্গত করা হয়েছে। 

প্রসঙ্গত যেভাবে কাশ্মীরের জন্য বলবত ৩৭০ ধারা লুপ্ত করেছে ভারত ও রাজ্যটিকে দ্বিখণ্ডিত করা হয়েছে দুটি কেন্দ্রীয় শাসিত অঞ্চলে এই  নিয়ে গত একবছর ধরে হাওয়া গরম করার চেষ্টা করছে পাকিস্তান। কিন্তু কাজের কাজ কিছু হয়নি। বিভিন্ন বিশ্ব ফোরামে গিয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করার চেষ্টা করলেও কেউ পাত্তা দেয়নি। সেই জন্যই নিজের দেশের মানুষদের দেখাতে যে তিনি একেবারে হাল ছেড়ে দেননি, সেই জন্যই এই নয়া ম্যাপ প্রকাশ বলে মনে করা হচ্ছে। এতে পাকিস্তানের বন্ধু চিনকেও কিছুটা খুশি করা যাবে বলে মনে করছেন ইমরান।     

অন্যদিকে দেশের মধ্যে ক্রমশ বালোচ ও সিন্ধি বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনগুলি জাঁকিয়ে বসছে। একযোগে পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে তারা অপারেশন করবে বলে জানানো হয়েছে। এরা শক্তি বৃদ্ধি করলে আরও বিপাকে পড়বেন ইমরান খান। তাই অগত্যা এখন কাশ্মীরের দিকে তিনি নজর ঘুরিয়েছেন বলেই মনে করা হচ্ছে।                                                                                                                                 

বুধবার ৩৭০ ধারা অবলুপ্তির দিনকে প্রতিবাদ দিবস হিসাবে পালন করছে পাকিস্তান। বিভিন্ন শহরে প্রতিবাদ মিছিল বেরোবে বলে জানান কুরেশি। ইসলামাবাদের কাশ্মীর হাইওয়ের নাম শ্রীনগর হাইওয়ে করা হবে। একই সঙ্গে ইমরান পাক অধিকৃত কাশ্মীরের অ্যাসেমব্লিতে বক্তব্য রাখবেন বলেও জানিয়েছেন কুরেশি। 

বন্ধ করুন