বাড়ি > ঘরে বাইরে > রাফাল ওড়ালেন প্রথম ভারতীয় পাইলট কাশ্মীরের ছেলে হিলাল আহমেদ রাঠের
ভারতে রওনা হওয়ার আগে ফ্রান্সে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত জাভেদ আশরফ এবং দাসঅ অ্যাভিয়েশন-এর চেয়ারম্যান এরিক ত্রাপিয়ের সঙ্গে এয়ার কমোডর হিলাল আহমেদ রাঠের।  
ভারতে রওনা হওয়ার আগে ফ্রান্সে ভারতীয় রাষ্ট্রদূত জাভেদ আশরফ এবং দাসঅ অ্যাভিয়েশন-এর চেয়ারম্যান এরিক ত্রাপিয়ের সঙ্গে এয়ার কমোডর হিলাল আহমেদ রাঠের।  

রাফাল ওড়ালেন প্রথম ভারতীয় পাইলট কাশ্মীরের ছেলে হিলাল আহমেদ রাঠের

  • বর্তমানে ফ্রান্সে তিনি ভারত সরকারের এয়ার অ্যাটাশে পদে রয়েছেন।

ফ্রান্স থেকে পাঁচটি রাফায়েল যুদ্ধবিমান দ্রুত ভারতে পাঠানোর পিছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে কাশ্মীরের অনন্তনাগের বাসিন্দা এয়ার কমোডোর হিলাল আহমেদ রাঠেরের। তিনিই প্রথম ভারতীয় বিমানচালক, যিনি রাফাল ওড়ালেন।  বর্তমানে ফ্রান্সে তিনি ভারত সরকারের এয়ার অ্যাটাশে পদে রয়েছেন।

গত ২৭ জুলাই ফ্রান্স থেকে ভারতের উদ্দেশে রওনা হওয়া ৫টি রাফাল যুদ্ধবিমান রওনা হওয়ার সময় একমাত্র ভারতীয় প্রত্যক্ষদর্শী পাইলট ছিলেন হিলালই। জানা গিয়েছে, রাফাল বিমানগুলি তাড়াতাড়ি ভারতে পাঠানোর পিছনে তাঁর অবদান যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। শুধু তাই নয়, যুদ্ধবিমানগুলি ভারতের সামরিক চাহিদা অনুযায়ী অস্ত্রসজ্জার পরিকল্পনার পিছনেও তাঁর ভূমিকা উল্লেখযোগ্য। 

১৯৮৮ সালের ১৭ ডিসেম্বর ভারতীয় বায়ুসেনায় ফাইটার পাইলট হিসেবে যোগ দেন হিলাল আহমেদ। ১৯৯৩ সালে তিনি ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট হদে উত্তীর্ণ হন এবং ২০০৪ সালে হন উইং কম্যান্ডার। ২০১৬ সালে গ্রুপ ক্যাপ্টেন পদে অভিষেক হয় হিলালের এবং ২০১৯ সালে তিনি এয়ার কমোডোর পদে উন্নীত হন। 

বায়ুসেনায় অসামান্য অবদানের কারণে ইতিমধ্যে তিনি সম্মানিত হয়েছেন বায়ুসেনা পদক ও বিশিষ্ট সেবা পদক দ্বারা। বিভিন্ন বায়ুযানে দুর্ঘটনাহীন ৩,০০০ ঘণ্টা ওড়ার নজিরও সৃষ্টি করেছেন দক্ষিণ কাশ্মীরের এই অভিজ্ঞ বায়ুসেনা অফিসার। 

২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে গ্রুপ ক্যাপ্টেন আনন্দের সঙ্গে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের উপস্থিতিতে শস্ত্রপুজোয় তাঁর অংশগ্রহণের ভিডিয়োটি সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ঝড় তুলেছে।

বন্ধ করুন