ছবিটি প্রতীকী।
ছবিটি প্রতীকী।

এয়ারটেল প্রিপেড ইউজারদের জন্য ন্যূনতম রিচার্জ ১০ বাড়ল

  • সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ২৩,০৪৫ কোটি টাকা ক্ষতির সম্মুখীন হয় ভারতী এয়ারটেল। ২০১৮ সালে এই ত্রৈমাসিকে ১১৯ কোটি টাকা লাভ করেছিল সংস্থা। একই ভাবে ২০১৮ সালে এই ত্রৈমাসিকে ৪,৮৭৪ কোটি টাকা লোকসান করেছিল ভোডাফোন, যা চলতি বছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০,৯২২ কোটি টাকায়।

প্রিপেড ইউজারদের ক্ষেত্রে ন্যূনতম মাসিক রিচার্জ মূল্য ১০ টাকা বাড়াল ভারতী এয়ারটেল লিমিটেড। এর জেরে প্রত্যেক প্রিপেড এয়ারটেল নেটওয়ার্ক ব্যবহারকারীকে ন্যূনতম ৪৫ টাকা খরচ করতে হবে, আগে যা ছিল ৩৫ টাকা। রবিবার বিজ্ঞপ্তি মারফত সংস্থার তরফে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগের ব্যবস্থায় ট্যারিফের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে গ্রাহকরা অতিরিক্ত ২৮ দিনের জন্য নেটওয়ার্ক ব্যবহার করতে পারতেন ২৩ টাকার বিনিময়ে। এই ব্যবস্থায় শুধুমাত্র ইনকামিং কল ও মেসেজের সুবিধা পাওয়া যেত।

গত নভেম্বর মাসে ভারতী এয়ারটেল ও ভোডাফোন আইডিয়া ৪০% ট্যারিফ বাড়ায়। সেই সঙ্গে চলতি মাসের গোড়ায় এক আলোচনা প্রক্রিয়া চালু করে টেলিকম মন্ত্রক, যাতে ট্যারিফ নির্দিষ্ট করার জন্য টেলিকম সংস্থার হস্তক্ষেপ আদৌ প্রয়োজন কি না, তা খতিয়ে দেখা হয়।

পাশাপাশি, মোবাইল পরিষেবার জন্য একটি নির্দিষ্ট অপরিবর্তিত অর্থমূল্য ধার্য করার বিষয়ও আলোচিত হয়। ট্যারিফ বাড়ানোর জন্য গত তিন বছর যাবত মোবাইল পরিষেবা সংস্থাগুলি যে আইনি আবেদন করে আসছে, তাতে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া জরুরিহয়ে পড়েছে।

২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে ভারতী এয়ারটেলের তরফে জানানো হয় যে, গ্রাহকদের জন্য ন্যূনতম রিচার্জের পরিমাণ মাসিক ৩৫ টাকা ধার্য করা হয়েছে। এর ফলে ইনঅ্যাক্টিভ গ্রাহকদের চিহ্নিতকরণ, প্রশাসনিক খাতে খরচ এবং সাধারণ বিপণন ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণের সুবিধা পাওয়া যাবে বলে দাবি করে সংস্থা। পাশাপাশি, অ্যাক্টিভ গ্রাহকদের আরও ভালো পরিষেবা দেওয়া যাবে বলেও জানানো হয়।

গত অগস্ট মাসে টেলিকম সংস্থা বনাম টেলিকম মন্ত্রকের মোট বার্ষিক আয়ের (এজিআর) সংজ্ঞা সংক্রান্ত মামলায় আদালতের দেওয়া রায়ের জেরে চাপে পড়ে যায় প্রথম পক্ষ। এই রায়ের পরে গত সেপ্টেম্বর মাসের ত্রৈমাসিকে এয়ারটেল-এর তরফে ৩৪,২৬০ কোটি টাকা এবং ভোডাফোনের তরফে ২৫,৬৭৭.৯০ কোটি টাকা লেভি খাতে সরিয়ে রাখা হয়।

এর ফলে সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে ২৩,০৪৫ কোটি টাকা ক্ষতির সম্মুখীন হয় ভারতী এয়ারটেল। ২০১৮ সালে এই ত্রৈমাসিকে ১১৯ কোটি টাকা লাভ করেছিল সংস্থা। একই ভাবে ২০১৮ সালে এই ত্রৈমাসিকে ৪,৮৭৪ কোটি টাকা লোকসান করেছিল ভোডাফোন, যা চলতি বছরে ওই ত্রৈমাসিকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫০,৯২২ কোটি টাকায়।

ডিসেম্বরের গোড়ায় হিন্দুস্তান টাইমস লিডারশিপ সামিটে আদিত্য বিড়লা গ্রুপের চেয়ারম্যান কুমার মঙ্গলম বিড়লা জানিয়েছিলেন,এজিআর নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের জেরে সরকারের তরফে ছাড়া না পেলে গ্রুপের টেলিকম সংস্থা ভোডাফোন আইডিয়া-কে বন্ধ করে দিতে হতে পারে।

শীর্ষ আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এয়ারটেল ও ভোডাফোন পালটা আবেদন জানিয়েছে, যার রায়ের উপরেই নির্ভর করছে এই দুই সংস্থার ভবিষ্যৎ।

সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত পাওয়া হিসেবে অনুযায়ী, ভারতে এয়ারটেলের মোবাই পরি,েবা বাবদ উপার্জন দাঁড়িয়েছে ১০,৮১১ কোটি টাকা, যা গত জুন ত্রৈমাসিকে ছিল ১০,৭২৪ কোটি টাকা। সেপ্টেম্বর মাসের শেষে এয়ারটেল গ্রাহকের সংখ্যা ২৭.৯৪৩ কোটি।

বন্ধ করুন