বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Indian Navy: আরব সাগরে বিমান নিয়ে দুর্ধর্ষ অভিযান নৌসেনার প্রমীলা বাহিনীর
ছবি: ভারতীয় নৌসেনা (Indian Navy)

Indian Navy: আরব সাগরে বিমান নিয়ে দুর্ধর্ষ অভিযান নৌসেনার প্রমীলা বাহিনীর

একটি ডোর্নিয়ার ২২৮ বিমানে চড়ে উত্তর আরব সাগরে সামুদ্রিক পুনরুদ্ধার এবং নজরদারি মিশন চালান সম্পূর্ণ মহিলাদের একটি টিম। এমন বড় অভিযানে এই প্রথম সম্পূর্ণ মহিলাদের কোনও টিম গেল। বৃহস্পতিবার ভারতীয় নৌবাহিনী এ বিষয়ে ঘোষণা করে।

ভারতীয় প্রতিরক্ষা বাহিনীর ইতিহাসে এক সোনালী দিন। বুধবার ইতিহাস গড়লেন নৌবাহিনীর একটি সম্পূর্ণ-মহিলা এয়ারক্রু। একটি ডোর্নিয়ার ২২৮ বিমানে চড়ে উত্তর আরব সাগরে সামুদ্রিক পুনরুদ্ধার এবং নজরদারি মিশন চালান তাঁরা। বৃহস্পতিবার ভারতীয় নৌবাহিনী এ বিষয়ে ঘোষণা করে।

যে পাঁচজন মহিলা এই কৃতিত্বের অংশীদার তাঁরা হলেন মিশন কমান্ডার এবং ক্যাপ্টেন লেফটেন্যান্ট কমান্ডার আঁচল শর্মা, পাইলট লেফটেন্যান্ট শিবাঙ্গী এবং লেফটেন্যান্ট অপূর্ব গীত, অফিসার লেফটেন্যান্ট পূজা পান্ডা এবং সেন্সর অফিসার সাব লেফটেন্যান্ট পূজা শেখাওয়াত।

গত কয়েক মাসে প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রে মহিলাদের জন্য বেশ কয়েকটি নতুন আঙিনা খুলে দেওয়া হয়েছে। এই পাঁচ মহিলা অফিসার পোরবন্দরের নেভাল এয়ার এনক্লেভে রয়েছেন।

নৌবাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'ঐতিহাসিক এই অভিযানের জন্য তাঁরা কয়েক মাস ধরে স্থল প্রশিক্ষণ এবং মিশন ব্রিফিং করেছেন।'

'ভারতীয় নৌবাহিনী সশস্ত্র বাহিনীতে এই বদল আনার বিষয়ে এগিয়ে আছে। নৌবাহিনীর নারীদের ক্ষমতায়নের উদ্যোগের মধ্যে রয়েছে আরও বেশি মহিলা পাইলটদের অন্তর্ভুক্ত করা, হেলিকপ্টার, বিমান অপারেশনের ক্ষেত্রে মহিলা অফিসারদের নির্বাচন করার মতো বিষয়। তাছাড়া ২০১৮ সালে একটি সম্পূর্ণ-মহিলা নৌযানে বিশ্ব পরিক্রমার মতো রোমহর্ষক অভিযান পরিচালনা করার মতো উদ্যোগও নিয়েছিল ভারতীয় নৌসেনা,' বলা হয়েছে বিবৃতিতে।

আগামীর অগ্নিবীর নারীরা

নৌবাহিনীতে নতুন অগ্নিপথ মডেলের অধীনে মহিলাদের অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এতদিন শুধুমাত্র অফিসার পদেই মহিলারা নৌবাহিনীতে চাকরি পেতেন। তবে এই প্রথম অফিসারের নিচের পদে মহিলা নৌসেনা নিয়োগ করা হবে।

সশস্ত্র বাহিনীতে মহিলাদের টার্নিং পয়েন্ট ছিল ২০১৫ সালে। সেই বছরই ভারতীয় বিমান বাহিনী প্রথমবার মহিলা বিমানচালকদের ফাইটার স্ট্রিমে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেয়।

নৌবাহিনী মহিলা কর্মীদের যুদ্ধজাহাজে কাজ করার আরও বেশি সুযোগ দিচ্ছে। সেনাবাহিনী তাঁদের হেলিকপ্টার ওড়ানোর অনুমতি দিয়েছে। তবে পদাতিক বাহিনীতে ট্যাংক চালানো এবং সশস্ত্র যুদ্ধের মতো ক্ষেত্রে এখনও মহিলাদের নিয়োগ দেওয়া হয় না।

বন্ধ করুন