বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'ধর্ষণ হয়নি', আলওয়ারে উদ্ধার মানসিক ভারসাম্যহীন নাবালিকাকে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য
আলওয়ারে উদ্ধার মানসিক ভারসাম্যহীন নাবালিকাকে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য (প্রতীকী ছবি)
আলওয়ারে উদ্ধার মানসিক ভারসাম্যহীন নাবালিকাকে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য (প্রতীকী ছবি)

'ধর্ষণ হয়নি', আলওয়ারে উদ্ধার মানসিক ভারসাম্যহীন নাবালিকাকে ঘিরে ঘনীভূত রহস্য

  • আলওয়ারের সেই মানসিক ভারসাম্যহীন নাবালিকার ধর্ষণ হয়নি, মেডিক্যাল রিপোর্ট হাতে এল পুলিশের।

রাজস্থানের আলওয়ারে খোঁজ মেলা ১৬ বছর বয়সী প্রতিবন্ধী নাবালিকাকে ধর্ষণ বা অপহরণ করা হয়নি। এমনই তথ্য উঠে এল সেই নাবালিকার মেডিক্যাল পরীক্ষার পর। আলওয়ারের পুলিশ সুপার তেজস্বিনী গৌতম জানিয়েছেন, সেই প্রতিবন্ধী নাবালিকার মেডিক্যাল পরীক্ষার দায়িত্বে ছিলেন জয়পুরের জেকে লোন হাসপাতালের পাঁচ চিকিত্সক। চিকিত্সকরা শুক্রবার সেই রিপোর্ট তুলে দেয় পুলিশের হাতে। উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাতে আলওয়ারের একটি উড়ালপুলের উপর থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় ওই নাবালিকাকে।

প্রাথমিক ভাবে সন্দেহ করা হয়েছিল, ধর্ষণ করে নাবালিকাকে ব্রিজের উপর ফেলে দিয়ে গিয়েছিল দুষ্কৃতীরা। তবে মেডিক্যাল রিপোর্ট হাতে পেয়ে পুলিশের দাবি, মানসিক ভারসাম্যহীন নাবালিকাকে ধর্ষণ করা হয়নি। এদিকে পুলিশ আরও জানিয়েছে, এই মামলা সংক্রান্ত একটি ভিডিয়ো ফুটেজ তাঁদের হাতে এসেছে। সেই ভিডিয়োর সূত্র ধরে এই রহস্যের জট খুলতে পারে বলে আশা করছেন তদন্তকারীরা। এই ঘটনায় ইতিমধধ্যেই তদন্তে গাফিলতির অভিযোগও এনে সিবিআই তদন্তের দাবি করেছে বিরোধী দলগুলি। 

আলওয়ারের পুলিশ সুপার দাবি করেন, গ্রাম থেকে নিজেই শহরে এসেছইল সেই নাবালিকা। একটি অটো করে সে শহরে এসেছিল। সেই অটোর খোঁজও পেয়েছে পুলিশ। পুলিশ আধইকারিক বলেন, ‘যেই অটোতে সেই নাবালিকা ভ্রমণ করে সেই অটোকে আমরা চিহ্নিত করেছি। আমরা অটোতে থাকা ৮-১০ জন সহযাত্রীকেও চিহ্নিত করেছি। অটোচালককে আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। ফরেনসিক সায়েন্স দল অটোতে খোঁজ করে অবশ্য সন্দেহজনক কিছুই পায়নি। এখন অটোতে থাকা যাত্রীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। মেয়েটি গ্রাম থেকে প্রায় ২৫ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে অটোতে করে আলওয়ার শহরে পৌঁছেছিল। সেখান থেকে ব্রিজের দিকে একাই হাঁটতে থাকে সে।’ যা পরিস্থিতি তাতে রহস্যের জট খোলার বদলে আরও জটিল হচ্ছে এই মামলায়।

বন্ধ করুন