বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অ্যামাজনের মাধ্যমে গাঁজা ডেলিভারি, সংস্থার শীর্ষ কর্তার বিরুদ্ধে মামলা পুলিশের
মধ্যপ্রদেশে অ্যামাজনের শীর্ষ কর্তার বিরুদ্ধে মামলা পুলিশের (ছবি : রয়টার্স) (REUTERS)
মধ্যপ্রদেশে অ্যামাজনের শীর্ষ কর্তার বিরুদ্ধে মামলা পুলিশের (ছবি : রয়টার্স) (REUTERS)

অ্যামাজনের মাধ্যমে গাঁজা ডেলিভারি, সংস্থার শীর্ষ কর্তার বিরুদ্ধে মামলা পুলিশের

  • দুই গাঁজা বিক্রেতা এবং একজন ক্রেতাকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে মধ্যপ্রদেশ পুলিশ। 

মধ্যপ্রদেশের ভিন্দ শহরে গাঁজার সঙ্গে জড়িত একটি চমকপ্রদ মামলার ক্ষেত্রে মমলা দায়ের করা হল অ্যামাজন ইন্ডিয়ার নির্বাহী পরিচালকদের বিরুদ্ধে। অনলাইন ডেলিভারির সংস্থাটির একটি প্যাকেজে করে গাঁজা সরবরাহ মামলা সামনে আসে কয়েকদিন আগে। ভিন্দের সেই ঘটনার প্রেক্ষিতে শনিবার পুলিশ সংস্থার শীর্ষ কর্তাদের বিরুদ্ধে এই মামলা করেছে।

গত ১৩ নভেম্বর এনডিপিএস আইনের অধীনে গোহাদ থানায় - ২২৮/২১ এবং ৮/২০ ধারায় একটি মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছিল। পুলিশ ভিন্দের বাসিন্দা পিন্টু তোমর এবং সুরজ পাভিয়ার কাছ থেকে ২১.৭ কেজি গাঁজা বাজেয়াপ্ত করে। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এরপর মুকুল জয়সওয়াল নামক গোয়ালিয়রের স্থানীয় এক বাসিন্দা কেও আটক করা হয়। গাঁজার একজন ক্রেতা চিত্রা বাল্মীকিকেও পুলিশ গ্রেপ্তার করে।

পুলিশের তদন্তে উঠে আসা তথ্য থেকে জানা গিয়েছে যে সুরজ এবং মুকুল জয়সওয়াল বাবু টেক্স নামক একটি ফার্ম তৈরি করেছিল এবং অ্যামাজনের সাথে বিক্রেতা হিসাবে নিবন্ধিত হয়েছিল। বিশাখাপত্তনম থেকে তাদের নির্বাচিত গ্রাহকদের অনলাইনে গাঁজা সরবরাহ করত সুরজ ও মুকুল।

ই-কমার্স সাইট অ্যামাজন দেওয়া নথি ও তদন্তে উঠে আসা সাক্ষ্যের পার্থক্যের বিষয়টি বিবেচনা করে পুলিশ এএসএসএল অ্যামাজনের নির্বাহী পরিচালকদের এনডিপিএস আইন ১৯৮৫-এর ৩৮ ধারার অধীনে অভিযুক্ত হিসাবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে এই মামলায়। মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র এর আগে ই-কমার্স পোর্টালের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন। জানিয়েছিলেন, যদি কোম্পানি তদন্তে সহযোগিতা করতে ব্যর্থ হয় তাহলে সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হবে। কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স দেশে গাঁজার অবৈধ অনলাইন বিক্রির ক্ষেত্রে অ্যামাজনের ভূমিকা নিয়ে তদন্ত করার জন্য নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরোকে (এনসিবি) চিঠি দিয়েছে।

 

বন্ধ করুন