বাড়ি > ঘরে বাইরে > ভারত-চিন কূটনৈতিক বৈঠকের মাঝেই লাদাখে প্রস্তুতি খতিয়ে দেখলেন সেনাপ্রধান
সাবাশি দিচ্ছেন সেনাপ্রধান (PTI)
সাবাশি দিচ্ছেন সেনাপ্রধান (PTI)

ভারত-চিন কূটনৈতিক বৈঠকের মাঝেই লাদাখে প্রস্তুতি খতিয়ে দেখলেন সেনাপ্রধান

লাদাখে ফরওয়ার্ড এরিয়ায় গিয়েছেিলেন সেনাপ্রধান নারভানে। যারা অনবদ্য লড়াই করেছেন গালওয়ানে চিনের সেনাদের বিরুদ্ধে, তাদের হাতে বিশেষ শংসাপত্র তুলে দেন তিনি। 

একদিকে যখন লাদাখ নিয়ে কূটনৈতিক স্তরে বৈঠক হচ্ছে, অন্যদিকে সরজমিনে ফরওয়ার্ড বেসগুলি গিয়ে তদারকি করে এলেন ভারতীয় সেনা প্রধান এম এম নারভানে। অর্থাত্ আলোচনার মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা হলেও যে কোনও পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুত থাকছে ভারত। 

গতকাল মলডোতে সামরিক স্তরে প্রায় ১১ ঘণ্টা বৈঠকের পর এদিন কূটনৈতিক স্তরে লম্বা বৈঠক হল পূর্ব লাদাখের অচলাবস্থা ও গালওয়ান সংঘর্ষ পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে। পূর্ব এশিয়ার দায়িত্বপ্রাপ্ত যুগ্ন সচিব নবীন শ্রীবাস্তব ও চিনের বিদেশমন্ত্রকের ডিজি উ জিয়ানঝাওয়ের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। 

বিদেশমন্ত্রক এটি জানিয়েছে যে ভারত বলেছে দুই পক্ষের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখাকে মর্যাদা করা উচিত। ধাপে ধাপে সীমান্তে সেনা কমানোর সিদ্ধান্তটি দ্রুত রূপায়ণ করতে পারলে শান্তি থাকবে বলেছে দুই দেশ একমত হয়েছে। 

সামরিক ও কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চলতে থাকবে বলেও সহমত হয়েছে দুই দেশ। কার্যত একই সুরে কথা বলেছে চিন। দুই দেশের বাহিনীর মধ্যে বিশ্বাস বাড়ানোর কথাও বলা হয়েছে। 

অন্যদিকে এদিন লাদাখে ফরওয়ার্ড এরিয়ায় গিয়েছেিলেন সেনাপ্রধান নারভানে। যারা অনবদ্য লড়াই করেছেন গালওয়ানে চিনের সেনাদের বিরুদ্ধে, তাদের হাতে বিশেষ শংসাপত্র তুলে দেন তিনি। যেই চার জায়গায় চিনের সঙ্গে চোখে চোখে রেখে কথা বলছে ভারতীয় সেনারা, সেখানে প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন তিনি। জওয়ানদের সঙ্গে কথা বলা ছাড়াও কম্যান্ডারদের সঙ্গে আলোচনা করেন তিনি। 

গালওয়ানে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর দুই পক্ষই বলেছে যে তারা আস্তে আস্তে সেনা সরাবেন। কিন্তু এখনও কাজের কাজ কিছু হয়নি। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় রয়েছে চোরা টেনশন। 

 

বন্ধ করুন