বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘আন্দোলনজীবী’-রা ‘পরজীবী’, নয়া FDI বা ফরেন ডেস্ট্রাক্টিভ আইডিয়োলজি দেখা যাচ্ছে: মোদী
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

‘আন্দোলনজীবী’-রা ‘পরজীবী’, নয়া FDI বা ফরেন ডেস্ট্রাক্টিভ আইডিয়োলজি দেখা যাচ্ছে: মোদী

  • মোদীর মন্তব্য, ‘আন্দোলনজীবী’-রা নিজেরা আন্দোলন করতে পারেন না। যেখানে আন্দোলন চলছে, সেখানে গিয়ে বসে যান।

সরাসরি বিক্ষোভকারী কৃষকদের বিরুদ্ধে মুখ খুললেন না। তবে যাঁরা কৃষক বিক্ষোভ-সহ বিভিন্ন আন্দোলনে ‘উস্কানি’ দিচ্ছেন, তাঁদের ‘আন্দোলনজীবী’ হিসেবে কটাক্ষ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। একইসঙ্গে জানালেন, ওই  ‘আন্দোলনজীবী’-রা আদতে ‘পরজীবী’। তাঁদের ছুড়ে ফেলে দিতে হবে। 

গত কয়েক মাস ধরে নয়া তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন নেমেছেন কৃষকরা। তাতে সামিল হয়েছেন সমাজের বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ। সোমবার রাজ্যসভায় রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণের উপর ধন্যবাদ জ্ঞাপন প্রস্তাবের সময় মোদীর বক্তৃতায় সেই বিক্ষোভের প্রসঙ্গ উঠে আসে। তারই ফাঁকে রীতিমতো কটাক্ষের সুরে মোদী বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে আমি দেখছি যে দেশে একটি নতুন শ্রেণি সামনে এসেছে, আর সেটা হল আন্দোলনজীবী। উকিলদের আন্দোলন হচ্ছে, সেখানে ওঁদের দেখা যাবে। পড়ুয়াদের আন্দোলন চলছে, সেখানেও নজরে আসবে। শ্রমিকদের আন্দোলন চলছে, সেখানেও নজরে আসবে। কখনও পর্দার পিছনে, কখনও পর্দার সামনে। এদের পুরো একটা গোষ্ঠী আছে। এরা আন্দোলন চাড়া বাঁচতে পারবে না। আর আন্দোলনের মাধ্যমে বেঁচে থাকার জন্য রাস্তা খুঁড়তে থাকেন।’ সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘আন্দোলনজীবী’-রা নিজেরা আন্দোলন করতে পারেন না। যেখানে আন্দোলন চলছে, সেখানে গিয়ে বসে যান। ওই ‘পরজীবী’-দের ছুড়ে ফেলে দিতে হবে। তাঁদের থেকে দেশবাসীকে সতর্ক করেছেন। রসিক হওয়ার চেষ্টা করে মোদী বলেন, ‘এখানে যাঁরা যাঁরা বসে আছেন, তাঁরা আনন্দ পাবেন। কারণ আপনারা যেখানে যেখানে সরকার চালান, সেখানে এরকম পরজীবী আন্দোলনজীবীদের সম্মুখীন হয়েছেন।’

একইসঙ্গে নিজেদের লাইন বজায় রেখে কৃষক বিক্ষোভে বিদেশি শক্তি ‘উস্কানি’ দিচ্ছে বলেও ঘুরিয়ে অভিযোগ করেন মোদী। তাঁর কথায়, ‘দেশের উন্নতি হচ্ছে। আমরা এফডিআইয়ের বিষয়ে কথা বলছি - প্রত্যক্ষ বিদেশি বিনিয়োগ। কিন্তু এখন ময়দানে নয়া এফডিআই হাজির হয়েছে। এই নয়া এফডিআইয়ের থেকে অবশ্যই বাঁচতে হবে। আর এই নয়া এফডিআই হল ফরেন ডেস্ট্রাক্টিভ আইডিয়োলজি (ধ্বংসের প্রচার করা বিদেশি মতাদর্শ)।’

বন্ধ করুন