মমতাকে শুভেচ্ছা হেমন্তের (ছবি সৌজন্য এএনআই)
মমতাকে শুভেচ্ছা হেমন্তের (ছবি সৌজন্য এএনআই)

'ভোটের জন্য গুন্ডা আনতে গিয়েছেন', হেমন্তের শপথে মমতার উপস্থিতিতে কটাক্ষ বিজেপির

বাবুল সুপ্রিয় বলেন, আগামী বছর বাংলায় পুরসভা নির্বাচনে মুখ ঢাকা গুন্ডাদের দেখতে পাবেন।

কর্নাটকের পর ঝাড়খণ্ড। মুখ্যমন্ত্রী পদে হেমন্ত সোরেনের শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে আবার অবিজেপি দলগুলি একই মঞ্চে হাজির হতে চলেছে। সেখানে বিজেপি-বিরোধী জোটের সলতে পাকানোর কাজও হবে বলে ধারণা রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

গতকাল সন্ধ্যাতে রাঁচিতে পৌঁছে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সঙ্গে হোটেলে গিয়ে দেখা করেন হেমন্ত। মমতার পা হাত দিয়ে প্রণাম করেন ঝাড়খণ্ডের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী। অনুষ্ঠানে কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা, এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ার, সমাজবাদী পার্টির অখিলেশ যাদব, ডিএমকের এম কে স্ট্যালিনের আসার কথা রয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে শপথগ্রহণে হাজির থাকতে পারেন কংগ্রেসের অন্তবর্তীকালীন সভাপতি সনিয়া গান্ধীও।

রাজনৈতিক মহলের ধারণা, গত বছর কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী পদে এইচ ডি কুমারস্বামীর শপথে যেভাবে বিরোধী ঐক্যের বার্তা দেওয়া গিয়েছিল, হেমন্তের শপথেও সেটাই লক্ষ্য বিরোধীদের। ইতিমধ্যে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিক পঞ্জীর বিরুদ্ধে বিরোধীদের ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মমতা। আলাদাভাবে চিঠিও দিয়েছেন। এবার ঘরোয়াভাবে আলোচনাও করতে পারেন বলে রাজনৈতিক মহলের ধারণা।

যদিও মমতার রাঁচী সফরকে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি বিজেপি। আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় বলেন, 'ভোটের সময় ঝাড়খণ্ড থেকে বাংলায় গুন্ডা আনার কথাবার্তা চূড়ান্ত করতে ঝাড়খণ্ডে গিয়েছেন দিনি। আগামী বছর বাংলায় পুরসভা নির্বাচনে মুখ ঢাকা গুন্ডাদের দেখতে পাবেন।'



বন্ধ করুন