বাড়ি > ঘরে বাইরে > মাত্র ১০০ টাকা দিয়ে আবেদন, কেন্দ্রীয় প্রকল্পে তৈরি বাড়ি এবার হাতের মুঠোয়
কেন্দ্রীয় আবাসন প্রকল্পে মাত্র একশো টাকা খরচ করে অনলাইনে বাড়ির জন্য আবেদন পাঠানো যাবে।
কেন্দ্রীয় আবাসন প্রকল্পে মাত্র একশো টাকা খরচ করে অনলাইনে বাড়ির জন্য আবেদন পাঠানো যাবে।

মাত্র ১০০ টাকা দিয়ে আবেদন, কেন্দ্রীয় প্রকল্পে তৈরি বাড়ি এবার হাতের মুঠোয়

  • মাত্র একশো টাকা খরচ করে অনলাইনে বাড়ির জন্য আবেদন পাঠানো যাবে। ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত আবেদন করা যাবে।

মাত্র ১০০ দিয়ে বুকিং করা যাবে পছন্দের বাড়ি। বিনিময়ে পাওয়া যাবে কেন্দ্রীয় সরকারের প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় তৈরি মধ্যবিত্তের সাধ্যানুযায়ী দামের মধ্যে স্বপ্নের নিবাস।  

২০১৫ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্যোগে চালু হয়েছে মধ্যবিত্তের পকেটদুরস্ত সরকারি আবাসন প্রকল্প। মাত্র একশো টাকা খরচ করে অনলাইনে বাড়ির জন্য আবেদন পাঠানো যাবে।

কেন্দ্রীয় প্রকল্পের অধীনে উত্তর প্রদেশের ১৯টি শহরে মোট ৩,৫১৬টি বাড়ির বুকিং ১ সেপ্টেম্বর থেকে চালু করেছে উত্তর প্রদেশে আবাস বিকাশ পরিষদ। ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করা যাবে। 

একই সঙ্গে হরদোই, ফতেহপুর, কানপুর গ্রামীণ, কনৌজ, উন্নাও, বলরামপুর ও রায় বরেলি-সহ একাধিক অঞ্চলের প্রত্যেকটিতে আরও ৯৬টি করে বাড়ি নির্মাণ করেছে কেন্দ্র। সেই সমস্ত বাড়িরও বুকিং আবেদন জমা নেওয়া হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অন্তর্গত রাজধানী লখনউতে তৈরি হয়েছে সর্বাধিক ৮১৬টি বাড়ি। এ ছাড়া গাজিয়াবাদে ৬২৪, মীরাটে ৪৮০, গোন্ডায় ৩৯৬টি বাড়ির বুকিং নেওয়া হবে। 

নিম্নবিত্তদের জন্য কেন্দ্রীয় প্রকল্প অনুযায়ী, মাত্র ৩.৫ লাখ টাকায় বাড়ি কেনা যাবে। প্রকল্পে উত্তর প্রদেশে সব মিলিয়ে ৩,৫১৬টি বাড়ি বিক্রি হবে। বার্ষিক আয় তিন লাখ টাকার কম হলেই এই বাড়ি বুক করার অনুমতি পাওয়া যাবে। 

এই প্রকল্পের অধীনে তৈরি বাড়িগুলির কার্পেট এরিয়া ২২.২২ বর্গ মিটার এবং বাড়ির সুপার বিল্টআপ এরিয়া ৩৪.০৭ বর্গ মিটার। 

আগ্রহীরা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার অন্তর্ভুক্ত বাড়ি কিনতে চাইলে লগ ইন করতে হবে http://pmaymis.gov.in ওয়েবসাইটে। সেখানে বার্ষিক আয়ের ভিত্তিতে থাকা অপশন-এ ক্লিক করতে হবে। এবার নিজের আধার নম্বর-সহ তথ্য দেওয়ার পরে আবেদন রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ হবে। আবেদনের সময় জমা দিতে হবে ১০০ টাকা। তবে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ৫,০০০ টাকা থাকা আবশ্যিক।

বন্ধ করুন