বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ISI-এর মহিলা এজেন্টের মধুচক্রের ফাঁদে সেনা জওয়ান, গোপন তথ্য ফাঁস করায় গ্রেফতার
গোপন তথ্য ফাঁস করায় গ্রেফতার সেনা জওয়ান (প্রতীকী ছবি) (HT_PRINT)
গোপন তথ্য ফাঁস করায় গ্রেফতার সেনা জওয়ান (প্রতীকী ছবি) (HT_PRINT)

ISI-এর মহিলা এজেন্টের মধুচক্রের ফাঁদে সেনা জওয়ান, গোপন তথ্য ফাঁস করায় গ্রেফতার

  • সেনাবাহিনীর মেডিকেল কোর সম্পর্কিত বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফাঁস করার কথা স্বীকার করে নেয় ধৃত জওয়ান।

গোপন তথ্য ফাঁস করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে এক সেনা জওয়ানকে। পুনেতে মোতায়েন থাকা ধৃত জওয়ানের নাম গণেশ প্রসাদ। সেই জওয়ানকে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে খাগৌল পুলিশ এবং সামরিক গোয়েন্দাদের সহায়তায় বিহার এটিএস গ্রেপ্তার করে। সেনাবাহিনীর মেডিকেল কোর সম্পর্কিত বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফাঁস করার কথা স্বীকার করে নেয় ধৃত জওয়ান। বর্তমানে ধৃতকে খাগৌল থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর, সেনা জওয়ান গণেশ প্রসাদ পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-এর এক মহিলা এজেন্টের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। যোধপুরে পোস্টিংয়ের সময় ওই মহিলা তাঁকে মধুচক্রের ফাঁদে ফেলেন। বলা হচ্ছে, নৌবাহিনীর একজন মেডিকেল স্টাফ হওয়ার ভান করে ওই মহিলা গণেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব করেছিলেন। জিজ্ঞাসাবাদের সময় গণেশ স্বীকার করেছেন যে সেনা হাসপাতালে সংযুক্ত ইউনিটের সংখ্যা সহ সেই মহিলাকে অনেক তথ্য সে দিয়েছে।

তথ্য অনুযায়ী, সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল কোরের সৈনিক গণেশ প্রসাদ বর্তমানে পুনেতে কর্মরত। প্রায় দুই বছর আগে তিনি আইএসআই-এর এক মহিলা এজেন্টের সংস্পর্শে আসেন। সূত্রের খবর, চার দিন আগে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার কাছ থেকে গণেশ সম্পর্কে তথ্য পেয়েছিল বিহার এটিএস। এরপর অত্যন্ত গোপনে তাকে গ্রেপ্তারের দায়িত্ব দেওয়া হয় একটি দলকে। অবশেষে রবিবার ধরা পড়ে গণেশ। বর্তমানে তাকে খাগৌল থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। গণেশকে গ্রেপ্তারের কথা সেনা কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মামলা করা হয়েছে।

তথ্য অনুযায়ী, ধৃত সেনা জওয়ান গণেশ প্রসাদের মোবাইল ফোন বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। মোবাইলের ফরেনসিক পরীক্ষা করা হবে। মোবাইলের মাধ্যমে আইএসআই-এর মহিলা এজেন্টকে কী বার্তা দেওয়া হয়েছে তা জানার চেষ্টা করছে তদন্তকারী সংস্থাগুলি। ধৃত জওয়ানকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন এটিএস, আর্মি ইন্টেলিজেন্স, পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার অফিসাররা।

বন্ধ করুন