বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাংলা নেপাল সীমান্তে ঘুরছিল সিধু মুসেওয়ালার মূল খুনী, ধরে ফেলল দিল্লি পুলিশ
গুলি করে খুন করা হয়েছিল সিধু মুসেওয়ালাকে। (File Photo)

বাংলা নেপাল সীমান্তে ঘুরছিল সিধু মুসেওয়ালার মূল খুনী, ধরে ফেলল দিল্লি পুলিশ

  • পঞ্জাবের অন্যতম জনপ্রিয় গায়ক ছিলেন মুসেওয়ালা। গত বছর ডিসেম্বর মাসে তিনি কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন। এদিকে ফেসবুক পোস্টে কানাডার গ্যাংস্টার গোল্ডি বার এই খুনের দায় স্বীকার করেছিল। ব্রার লরেন্স বিষ্ণোইয়ের বিশ্বস্ত সঙ্গী ছিল বলে অভিযোগ।

পঞ্জাবি গায়ক তথা রাজনীতিবিদ সিধু মুসেওয়ালাকে খুনের ঘটনায় বড় মোড়। মূল খুনীকে গ্রেফতার করা হল বাংলা-নেপাল সীমান্ত এলাকা থেকে। ধৃতের নাম দীপক ওরফে মুন্ডি। এমনটাই জানিয়েছে পঞ্জাব পুলিশ। পঞ্জাবের ডিরেক্টর জেনারেল অফ পুলিশ গৌরব যাদব জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় এজেন্সি ও দিল্লি পুলিশের যৌথ অভিযানে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, দীপকের পাশাপাশি কপিল পণ্ডিত ও রাজিন্দর নামে আরও দুই অভিযুক্তকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। টুইটারে পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন, দীপক, কপিল পণ্ডিত ও রাজিন্দরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বাংলা-নেপাল সীমান্তে অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশের দাবি, সেদিন দীপকই গুলি চালিয়েছিল। কপিল ও রাজিন্দর অস্ত্র দিয়ে তাকে সহায়তা করেছিল। প্রসঙ্গত গত ২৯ মে পঞ্জাবের মানসা জেলায় জওহারকে গ্রামের কাছে গুলিতে ঝাঁঝরা করে দেওয়া হয় মুসেওয়ালাকে। পঞ্জাব পুলিশ তাঁর নিরাপত্তা কমিয়ে দেওয়ার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাঁকে এভাবে নৃশংসভাবে খুন করা হয়।

পঞ্জাবের অন্যতম জনপ্রিয় গায়ক ছিলেন মুসেওয়ালা। গত বছর ডিসেম্বর মাসে তিনি কংগ্রেসে যোগ দিয়েছিলেন। এদিকে ফেসবুক পোস্টে কানাডার গ্যাংস্টার গোল্ডি বার এই খুনের দায় স্বীকার করেছিল। ব্রার লরেন্স বিষ্ণোইয়ের বিশ্বস্ত সঙ্গী ছিল বলে অভিযোগ।

এদিকে গত ২০ জুলাই অমৃতসরের কাছে মুসেওয়ালার দুজন অভিযুক্ত খুনীকে এনকাউন্টারে নিকেশ করেছিল পুলিশ। তাদের কাছ থেকে একে ৪৭ ও পিস্তলও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল।

বন্ধ করুন