ছবিটি প্রতীকী।
ছবিটি প্রতীকী।

ব্রিটেনে মিলল অরুণাচলের ‘আত্মঘাতী’ মুখ্যমন্ত্রীর ছেলের দেহ

৯ অগস্ট মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি আবাসে নিজের ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী কালিখো পুলের (৪৭) দেহ। ওই ঘর থেকেই পাওয়া গিয়েছিল তাঁর লেখা ‘মাই থটস’ শিরোনামে ৬০ পাতার দীর্ঘ লেখনী।

ব্রিটেনে নিজের অ্যাপার্টমেন্টে পাওয়া গেল অরুণাচল প্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কালিখো পুলের ছেলে বছর কুড়ির শুভাংশু পুলের দেহ। ঘটনা কেন্দ্র করে ঘনাল রহস্য। রহস্যজনক পরিস্থিতিতে মৃত্যু হয়েছে সুভাংশুর, মঙ্গলবার জানিয়েছে ব্রিটিশ পুলিশ।

ছয় মাস আগে ব্রিটেনের সাসেক্স বিশ্ববিদ্যালয়ে ভরতি হয়েছিলেন শুভাংশু। এ দিন ব্রাইটনের নিজস্ব অ্যাপার্টমেন্ট থেকে উদ্ধার হয়েছে তাঁর দেহ। জানা গিয়েছে, মৃত্যুর কয়েক ঘণ্টা আগে মা দাংউইমসাই পুলের সঙ্গে ফোনে তাঁর কথা হয়।

গত ৯ অগস্ট মুখ্যমন্ত্রীর সরকারি আবাসে নিজের ঘরের সিলিং ফ্যান থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী কালিখো পুলের (৪৭) দেহ। ওই ঘর থেকেই পাওয়া গিয়েছিল তাঁর লেখা ‘মাই থটস’ শিরোনামে ৬০ পাতার দীর্ঘ লেখনী। ওই লেখায় বিচারবিভাগ ও রাজনীতির শীর্ষ কর্তাদের দুর্নীতিতে জড়িয়ে পড়া সম্পর্কে উল্লোেখ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

মৃত্যুর দুই মাস পরে প্রকাশিত ফরেন্সিক পরীক্ষার রিপোর্টে কালিখো পুলের মৃত্যুর পিছনে কোনও ষড়যন্ত্রের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া হয়। ঘটনার ৬ মাস পরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের হাতে সেই নথি তুলে দেয় অরুণাচল প্রদেশ সরকার। স্বামীর মৃত্যুর সিবিআই তদন্ত দাবি করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী পত্নী দাংউইমসাই পুল।

পরে দাংউইমসাই জানান, ইটানগরের সিবিআই আধিকারিকের কাছে স্বামীর মৃত্যুর খবর প্রথম পেয়েছিলেন। বর্তমানে তাঁর বড় ছেলে নয়াদিল্লিতে বাস করেন। ব্রিটেন থেকে শুভাংশুর দেহ দেশে ফিরিয়ে আনার উদ্দেশে তিনি সে দেশের ভারতীয় হাই কমিশনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন বলে জানিয়েছেন দাংউইমসাই।

পরবর্তীকালে প্রয়াত মুখ্যমন্ত্রীর তৃতীয়া স্ত্রী দাসাংলু পুল বিজেপির টিকিট পেয়ে অরুণাচলের হায়ুলিয়াং কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে জিতে বর্তমানে বিধানসভার সদস্য হিসেবে প্রতিষ্ঠিত। ওই আসন থেকে আগে জিতেছিলেন তাঁর স্বামী কালিখো পুল।

পুল।


বন্ধ করুন