করোনা মোকাবিলায় সংহতি প্রদর্শনে প্রধানমন্ত্রীর ডাকে রাত ৯টায় আলো নিভল হিমাচলের ধরমশালায়। অন্ধকার ঘনাতেই শুরু হল আতসবাজির দাপট। ছবি: এপি। (AP)
করোনা মোকাবিলায় সংহতি প্রদর্শনে প্রধানমন্ত্রীর ডাকে রাত ৯টায় আলো নিভল হিমাচলের ধরমশালায়। অন্ধকার ঘনাতেই শুরু হল আতসবাজির দাপট। ছবি: এপি। (AP)

দেশজুড়ে অকাল দীপাবলি, আলো নিভতেই শুরু শব্দবাজির দাপট

  • আলো নিভতেই প্রদীপ-মোমবাতি-মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইটের জ্বালানোর পাশাপাশি শুরু হল শব্দবাজির তাণ্ডব।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ডাকে করোনা মোকাবিলায় সংহতি প্রদর্শনে ঠিক রাত ৯টায় আলো নিভতেই প্রদীপ-মোমবাতি-মোবাইলের ফ্ল্যাশলাইটের জ্বালানোর পাশাপাশি শুরু হল শব্দবাজির তাণ্ডব।

পরিবেশবিদদের একাংশের আশঙ্কা, লকডাউনে যে পরিমাণে দূষণ কমেছিল, শব্দবাজির দাপটে সাময়িক হলেও তার ছন্দপতন ঘটেছে।

করোনা-যুদ্ধে ঐক্য ও সৌহার্দ্যের যে বাতাবরণ তৈরির জন্য যে নয় মিনিট প্রদীপ জ্বেলে সংহতি প্রদর্শনের ডাক দিয়েছিলেন নমো, এ দিন শব্দদূষণের প্রকোপে তা কিছুটা হলেও বিঘ্নিত হয়েছে বলে মনে করছেন দিল্লি, মুম্বই, আহমেদাবাদ, বেঙ্গালুরু ও কলকাতার বহু নাগরিক।

অকাল দীপাবলি পালনে বাজির দাপট নিয়ে টিপ্পনি কাটতে ছাড়েননি জম্মু ও কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লা। টুইটারে তাঁর মন্তব্য, ‘দিল্লিতে আতসবাজি। কী কারণে এই উৎসব পালন?'



বন্ধ করুন