বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পুলিশি হেফাজত থেকে 'কোনও অভিযুক্ত পালাতে গেলে ছাড়া হবে না', এনকাউন্টার তত্ত্বে সওয়াল হিমন্তের
হিমন্ত বিশ্বশর্মা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
হিমন্ত বিশ্বশর্মা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

পুলিশি হেফাজত থেকে 'কোনও অভিযুক্ত পালাতে গেলে ছাড়া হবে না', এনকাউন্টার তত্ত্বে সওয়াল হিমন্তের

সম্প্রতি অসমে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। আহত হয়েছেন ৯ জন। গুলিতে আহত হয়েছেন ৬ জন অভিযুক্ত।

অসমে সম্প্রতি পুলিশি এনকাউন্টারে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। এবার এই এনকাউন্টারের সপক্ষে মুখ খুললেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। এই প্রসঙ্গে তাঁর সাফ কথা, পুলিশি হেফাজতে থাকা অবস্থায় যদি কোনও অভিযুক্ত পালাতে যান, তাহলে তাঁকে ছাড়া হবে না।

সম্প্রতি অসমে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে ১১ জনের। আহত হয়েছেন ৯ জন। গুলিতে আহত হয়েছেন ৬ জন অভিযুক্ত। পুলিশি এনকাউন্টারে মৃত্যুর ঘটনাকে ঘিরে বিতর্ক তৈরি হলেও এই প্রসঙ্গে অসমের মুখ্যমন্ত্রী জানান, ‘‌বিরোধীরা যাই বলুক, যদি কোনও অভিযুক্ত পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় পালাতে চান, তাহলে পুলিশের এনকাউন্টার করা ছাড়া আর কোনও উপায় থাকে না। মানুষের সেবা করাটাই আমাদের কাজ। ধর্ষণ বা খুন করে এই সরকারের আমলে কেউ পার পাবে না। এই সব অভিযুক্তরা যদি পালানোর চেষ্টা করে তাহলে তাঁদের রেয়াত করা হবে না।’‌ বিরোধীরা যতই এই সরকারকে ট্রিগার হ্যাপি সরকার বলুক না কেন, এই প্রসঙ্গে অসমের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‌পুলিশ মোটেই আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছে না। আইনের সাহায্যেই অপরাধ দমন করা হয়। এর জন্য এনকাউন্টারের প্রয়োজন নেই। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এমনটা করা ছাড়া উপায় নেই।’‌

পুলিশি এনকাউন্টারে মৃত্যুর ঘটনা নতুন কোনও বিষয় নয়। এর আগে তেলাঙ্গানায় পুলিশি এনকাউন্টারে ধর্ষণে অভিযুক্তদের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এই ঘটনায় দেশ জুড়ে বিতর্কের ঝড় ওঠে। যদিও তেলাঙ্গানার কে চন্দ্রশেখর রাও সরকার পুলিশের এই ভূমিকার পাশে ছিল। পুলিশের এই ভূমিকার সপক্ষে অভিমত পোষণ করেছিল।

বন্ধ করুন