বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘ধন্যবাদ’,মমতাকে ফোন হিমন্তের, ময়নাগুড়ি রেল দুর্ঘটনা নিয়ে কথা দুই মুখ্যমন্ত্রীর
বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী। (ছবি সৌজন্যে এএনআই)
বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী। (ছবি সৌজন্যে এএনআই)

‘ধন্যবাদ’,মমতাকে ফোন হিমন্তের, ময়নাগুড়ি রেল দুর্ঘটনা নিয়ে কথা দুই মুখ্যমন্ত্রীর

  • দুর্ঘটনার কবলে পড়া রেল যাত্রীদের সাহায্য করায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী।

ময়নাগুড়ির রেল দুর্ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছে দিল্লি থেকে কলকাতা থেকে গুয়াহাটি। পরিস্থিতির উপর কড়া নজর রেখে চলেছে রাজ্য থেকে কেন্দ্র। বিকানের থেকে গুয়াহাটিগামী এই ট্রেনটিতে বহু যাত্রী ছিলেন যাঁরা অসমের বাসিন্দা। এই আবহে উদ্ধারকাজে তত্পরতা দেখানোয় এবং দুর্ঘটনার কবলে পড়া মানুষদের সাহায্য করায় বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী। গতাকলই টুইট করে হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানান যে এই বিষয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে তাঁর ফোনে কছা হয়েছে।

এক টুইট বার্তায় অসমের মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, ‘বিকানের-গুয়াহাটি এক্সপ্রেসের দুর্ঘটনা নিয়ে জানতে আমি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করে কথা বলি। তিনি সমস্ত রকমের সাহায্য প্রদানের আশ্বাস দিয়েছেন আমাকে। পরিস্থিতি সম্পর্কে আমাদের জানাতে থাকবেন বলেও কথা দিয়েছেন তিনি। ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য তাঁর সমস্ত সহায়তার জন্য আমি তাঁকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।’

উল্লেখ্য, গতকাল বিকেল পাঁচটা নাগাদ যখন ময়নাগুড়ির দুর্ঘটনাটি হয়, তখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সব রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে নিয়ে কোভিড পর্যালোচনা বৈঠকে ছিলেন। তবে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে মাঝ বৈঠকেই বেরিয়ে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা। টুইট করে মমতা লেখেন, ‘রাজ্য সদর দফতর থেকে পরিস্থিতির উপর নজর রাখা হচ্ছে।’ মমতার নির্দেশ পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছান রাজ্যের পদস্থ আধিকারিক, জেলাশাসক, জেলা পুলিশ সুপার, আইজি নর্থ বেঙ্গল সহ অনেকে। রাজ্যের বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিরাও একে একে ঘটনাস্থলে যেতে শুরু করেন। রাতে প্রাক্তন মন্ত্রী গৌতম দেবও ঘটনাস্থলে যান।

পরে দুর্ঘটনার বিষয়ে জানতে রেলমন্ত্রীকে ফোন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী খোদ। রেলমন্ত্রী টুইট করে লেখেন, ‘প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আমাকে ফোন করে গোটা ঘটনার ব্যাপারে জেনেছেন। উদ্ধারকাজের অগ্রগতির ব্যাপারেও খোঁজ নিয়েছেন তিনি।’

বন্ধ করুন