বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ১৬৩ কোটি টাকার মাদকের 'শেষকৃত্য' সম্পন্ন করলেন হিমন্ত, চালিয়ে দিলেন বুলডোজারও
মাদকের 'শেষকৃত্য' সম্পন্ন করলেন। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
মাদকের 'শেষকৃত্য' সম্পন্ন করলেন। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

১৬৩ কোটি টাকার মাদকের 'শেষকৃত্য' সম্পন্ন করলেন হিমন্ত, চালিয়ে দিলেন বুলডোজারও

সম্প্রতি অসমের দিফু ও গোলাঘাটে রাজ্য সরকারের তরফে মাদক বিরোধী অভিযান চালানো হয়। সেই অভিযানে বাজেয়াপ্ত হওয়া সামগ্রী এবার নিজের হাতে পুড়িয়ে দিলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী।

মাদক দ্রব্য পুড়িয়ে মাদক বিরোধী অভিযানে সরব হলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা। বাজেয়াপ্ত হওয়া ১৬৩ কোটি টাকার মাদক জনসমক্ষে পুড়িয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। চালিয়ে দেন বুলডোজারও। পরে টুইটারে তিনি লেখেন, মাদকের 'শেষকৃত্য' সম্পন্ন করলেন।

গত শনিবার থেকে দু'দিনের মাদক বিরোধী অভিযান শুরু করেছে অসম সরকার। গত কয়েক মাসে কয়েক কোটি টাকার মাদক রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছিল। মাদক বাজেয়াপ্ত করার পর এবার ছিল সেই সব মাদক দ্রব্য নষ্ট করে দেওয়ার পালা। সম্প্রতি অসমের দিফু ও গোলাঘাটে রাজ্য সরকারের তরফে মাদক বিরোধী অভিযান চালানো হয়। সেই অভিযানে বাজেয়াপ্ত হওয়া সামগ্রী এবার নিজের হাতে পুড়িয়ে দিলেন অসমের মুখ্যমন্ত্রী। এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট জানিয়ে দেন, যুবকদের মধ্যে যারা এই মাদক সরবরাহ করছে, তাদের রেয়াত করা হবে না। পুলিশকে মাদক চোরাকারবারিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। মাদক কারবারিদের ধরতে গিয়ে পুলিশকে পায়ে গুলি মারতেও হয়েছে। আইন অনুযায়ী, এই সব কারবারিদের বিরুদ্ধে পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, অসম ভারতে মাদকের অন্যতম প্রবেশদ্বার। এই অসম থেকেই দেশের বিভিন্ন জায়গায় মাদক ছড়িয়ে পড়ছে। তাই স্থানীয় যুবকদের মধ্যেও নেশা ঢুকে যাচ্ছে। এটা কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না।|

রাজ্য প্রশাসন সূত্রে খবর, অসমে ২ হাজার থেকে ৩ হাজার কোটির মাদক ব্যবসা রয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে অসম পুলিশ গত কয়েকমাসে মাত্র ১৬৩ কোটি মাদক বাজেয়াপ্ত করতে পেরেছে যা গোটা মাদক ব্যবসার প্রায় ২০ থেকে ৩০ শতাংশ। পুলিশ সূত্রে খবর, মায়ানমার থেকে অসমে এই মাদক দ্রব্য আসে। কার্বি আংলং হয়ে দিফু যায় এই মাদক দ্রব্য। নাগাল্যান্ড থেকে গোলাঘাটে আসে মাদকপাচার চক্রের সঙ্গে যুক্তরা। অসম থেকেই গোটা দেশে ছড়িয়ে পড়ে এই মাদক।

বন্ধ করুন