বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Assam: স্কুলে গোমাংস নিয়ে আসার অভিযোগ, প্রধান শিক্ষিকা পুলিশের জালে
গো মাংস স্কুলে নিয়ে আসার অভিযোগ, গ্রেফতার স্কুল শিক্ষিকা। প্রতীকী ছবি (HT_PRINT)

Assam: স্কুলে গোমাংস নিয়ে আসার অভিযোগ, প্রধান শিক্ষিকা পুলিশের জালে

  • সেকশন ১৫৩ এ ( দুই গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা তৈরি), আইপিসি ২৯৫ এ(ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত) অনুসারে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, অসম ক্যাটেল প্রিসারভেশন অ্যাক্ট এতে প্রয়োগ করা হয়নি। কারণ এই ঘটনায় বিফ বিক্রি বা গরু কাটা নিয়ে কোনও ঘটনা হয়নি।

উৎপল পরাশর

টিফিনে গো মাংস নিয়ে স্কুলে এসেছিলেন প্রধান শিক্ষিকা। অভিযোগ এমনটাই। তার জেরে তাঁকে গ্রেফতার করল অসমের পুলিশ। এরপর তাঁকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে। সূত্রের খবর, তিনি হুরকা চুঙ্গি মিডল স্কুলের প্রধানশিক্ষিকা। নাম ডালিমা নেস্সা। স্থানীয় কিছু বাসিন্দা তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন। এরপরই পুলিশ তৎপর হয়। গ্রেফতারের পর তাঁকে আদালতে পাঠানো হয়। গোয়ালপাড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মৃনাল ডেকা জানিয়েছেন, তাঁকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত চলছে।

অভিযোগ তিনি স্কুলে বিফ নিয়ে এসেছিলেন। দুপুরে তিনি সেটা আবার কয়েকজন টিচারকে দিয়েছিলেন। এদিকে এটা ১৪ই মের ঘটনা। ঘটনাচক্রে সেই সময় আবার শিক্ষা দফতর স্কুলগুলি কেমন চলছে সেব্যাপারে পর্যালোচনা করছিল। তবে অসমে সরাসরি গোমাংস খাওয়ার ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। তবে Assam Cattle preservation Act অনুসারে গরুর মাংস খাননা এমন জাতিভুক্ত এলাকায় অথবা কোনও মন্দির বা সত্রের ৫ কিমির মধ্যে গরুর মাংস বিক্রি নিষিদ্ধ।

সেকশন ১৫৩ এ ( দুই গোষ্ঠীর মধ্যে শত্রুতা তৈরি), আইপিসি ২৯৫ এ(ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত) অনুসারে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, অসম ক্যাটেল প্রিসারভেশন অ্যাক্ট এতে প্রয়োগ করা হয়নি। কারণ এই ঘটনায় বিফ বিক্রি বা গরু কাটা নিয়ে কোনও ঘটনা হয়নি।

বন্ধ করুন