বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > টিকা সরবরাহে দেরি, সেরাম ইনস্টিটিউটকে আইনি নোটিশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার
ফাইল ছবি : রয়টার্স (Reuters)
ফাইল ছবি : রয়টার্স (Reuters)

টিকা সরবরাহে দেরি, সেরাম ইনস্টিটিউটকে আইনি নোটিশ অ্যাস্ট্রাজেনেকার

দেশের অভ্যন্তরেই আরও বেশি টিকা সরবরাহ করছে SII। এর ফলে ঘাটতি দেখা দিচ্ছে আন্তর্জাতিক রফতানিতে।

করোনাভাইরাসে টিকা সরবরাহে দেরি - এমনই অভিযোগে সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়াকে (SII) আইনি নোটিশ দিল অ্যাস্ট্রাজেনেকা। মঙ্গলবার SII-এর সিইও আদার পুনাওয়ালা এক সংবাদমাধ্যমে সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছেন।

করোনা টিকা ডেভেলপ করে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা। গত বছর সেই টিকা উৎপাদনের জন্য তাদের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয় সেরাম ইনস্টিটিউট। ভারতের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও করোনা টিকা রফতানি করা হবে বলে চুক্তি হয়।

রাষ্ট্রপুঞ্জের কোভ্যাক্স প্রকল্পের অন্যতম অংশ এই অ্যাস্ট্রাজেনেকা-সেরাম ইনস্টিটিউটের ভ্যাকসিন। প্রথমে নিয়মিত নির্দিষ্ট হারেই টিকা রফতানি করে সেরাম ইনস্টিটিউট। তবে ২৫ মার্চ থেকে হয় ছন্দপতন।

কোভ্যাক্স-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়, সঠিক পরিমাণে টিকা পাঠাচ্ছে না সেরাম ইনস্টিটিউট। ভারতে করোনা সংক্রমণ হঠাত্ বেড়ে গিয়েছে। সঙ্গে বাড়ছে টিকাকরণও। ফলে দেশের অভ্যন্তরেই আরও বেশি টিকা সরবরাহ করছে SII। এর ফলে ঘাটতি দেখা দিচ্ছে আন্তর্জাতিক রফতানিতে। প্রায় ৯ কোটি করোনা টিকা সময়ে রফতানি করতে পারেনি সেরাম ইনস্টিটিউট, এমনই অভিযোগ।

এ প্রসঙ্গে সেরাম ইনস্টিটিউট কর্তা আদার পুনাওয়ালা কী বললেন? 'অ্যাস্ট্রাজেনেকা আমাদের একটা আইনি নোটিশ পাঠিয়েছে। ভারত সরকারও তা জানে। গোপনীয়তার স্বার্থে নোটিশের বিষয়ে আমি এখনই কিছু বলতে পারব না। তবে আমরা আলোচনার মাধ্যমে কীভাবে বিষয়টির নিষ্পত্তি করা যায় তার চেষ্টা চালাচ্ছি। ভারতে বেশি করে সরবরাহ করতে গিয়েই এই ঘাটতি তৈরি হয়েছে। সরকারও এ বিষয়ে কী করা যায় তাই নিয়ে ভাবছে,' জানালেন তিনি।

বিশ্বের বৃহত্তম ভ্যাকসিন উৎপাদনক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া। অক্সফোর্ড অ্যাস্ট্রাজেনেকার ডেভেলপ করা করোনা টিকা উত্পাদন করছে সংস্থা। কোভিশিল্ড নামে ভারতে ব্যবহৃত হচ্ছে সেই টিকা।

বন্ধ করুন