বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Tamil crisis in Sri Lanka: চিনা গুপ্তচর জাহাজ শ্রীলঙ্কায় নোঙর করার পর এবার কলম্বোর তামিল-নীতি নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে সরব ভারত
রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলে সরব ভারত।

Tamil crisis in Sri Lanka: চিনা গুপ্তচর জাহাজ শ্রীলঙ্কায় নোঙর করার পর এবার কলম্বোর তামিল-নীতি নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে সরব ভারত

  • তামিল ইস্যুতে একটি সমাধান সূত্রের প্রতিশ্রুতি দিয়েও লক্ষ্যপূরণে শ্রীলঙ্কার অগ্রগতির কমতি ইস্যুতে সুর চড়াল ভারত। রাষ্ট্রসংঘের মানাবাধিকার কাউন্সিলের ৫১ তম সেশনে ভারত এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করে। ভারত জানিয়েছে, যাতে দ্বীপরাষ্ট্রে রাজনৈতিকভাবে সেখানের ব্যবস্থাপনার মধ্যে তামিলরা বসবাস করতে পারেন প্রকৃত শান্তি, সমানাধিকার, সম্মান ও ন্যায় বিচার তাঁরা পান, তার দিকে তাকিয়ে রয়েছে ভারত।

কয়েকদিন আগে শ্রীলঙ্কার হামবানতোতা বন্দরে নোঙর গেড়েছিল চিনের গুপ্তচর জাহাজ। এই নোঙর গড়া রুখতে ভারত আগে থেকে সোচ্চার হলেও, শেষে চিনের কূটনীতির প্যাঁচে পড়ে এই নোঙর গড়ার অনুমতি দিতে বাধ্য হয় শ্রীলঙ্কা। উল্লেখ্য, ভারতের কাছে উদ্বেগ ছিল দেশের সেনার গোপনীয় তথ্যের নিরাপত্তা। চিনা গুপ্তচর জাহাজকে ঘিরে সেই উদ্বেগই প্রকাশ পায় দিল্লির তরফে। এরপর রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে ভারত প্রসঙ্গ তুলল তামিল ইস্যুতে শ্রীলঙ্কার অবস্থান নিয়ে।

তামিল ইস্যুতে একটি সমাধান সূত্রের  প্রতিশ্রুতি দিয়েও লক্ষ্যপূরণে শ্রীলঙ্কার অগ্রগতির কমতি ইস্যুতে সুর চড়াল ভারত। রাষ্ট্রসংঘের মানাবাধিকার কাউন্সিলের ৫১ তম সেশনে ভারত এই প্রসঙ্গ উত্থাপন করে। ভারত জানিয়েছে, যাতে দ্বীপরাষ্ট্রে রাজনৈতিকভাবে সেখানের ব্যবস্থাপনার মধ্যে তামিলরা বসবাস করতে পারেন প্রকৃত শান্তি, সমানাধিকার, সম্মান ও ন্যায় বিচার তাঁরা পান, তার দিকে তাকিয়ে রয়েছে ভারত। সেদেশে তামিল ইস্যুতে শান্তি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ আবহের দিকে দিল্লির ক্রমাগত নজর রয়েছে বলেও জানিয়েছে ভারত। ভারত জানিয়েছে, শ্রীলঙ্কার বর্তমান আর্থিক সংকটের অবস্থা তৈরি হয়েছে ঋণখেলাপি ঘিরে, যার প্রভাব সেখানের সাধারণ মানুষের ওপর রয়েছে। ভারত বলছে, ‘শ্রীলঙ্কার সর্বোত্তম স্বার্থে তার নাগরিকদের সক্ষমতা তৈরি করা দরকার।’ রাষ্ট্রসংঘের মঞ্চে দিল্লি বলেছে, নাগরিকদের সশক্ত করার বিষয়ে শ্রীলঙ্কার জোর দেওয়া দরকার বলেও জানিয়েছে ভারত। কর্মস্থলে স্বস্তি, নতুন চাকরির প্রস্তাব আসন্ন! রাশিফল কারা হতে চলেছেন ভাগ্য়বান?

এদিকে রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিলের এক সদস্যের বক্তব্য অনুযায়ী, সেদেশে মানবাধিকার রক্ষা করতে আরও বেশি করে উদ্যোগ নিতে হবে শ্রীলঙ্কাকে। দেশে গত কয়েক দশকের সবচেয়ে খারাপ আর্থিক সংকট থেকে রক্ষা পেতে মানবিক দিক থেকেও বলিষ্ঠ হয়ে বহু চ্যালেঞ্জ পার করার কথা বলা হচ্ছে শ্রীলঙ্কাকে নিয়ে। এছাড়াও রাষ্ট্রসংঘের সদস্যরা মনে করেন যে, শ্রীলঙ্কাকে আর্থিক মদতের জন্য বিশ্বের সমস্ত নামী আন্তর্জাতিক  প্রতিষ্ঠানগুলির এগিয়ে আসা উচিত। 

 

 

 

বন্ধ করুন